সেকশনস

করোনায় কমেছে বধ্যভূমির দর্শনার্থী

আপডেট : ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ১১:২৪

রাবির বধ্যভূমি



করোনার কারণে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বধ্যভূমির স্মৃতিস্তম্ভ দর্শনার্থীর সংখ্যা কমেছে। আগে প্রতিদিন কয়েকশ’ দর্শনার্থী শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে বধ্যভূমি স্মৃতিস্তম্ভে আসতেন। কিন্তু করোনার কারণে দর্শনার্থীর সংখ্যা কমে গেছে। 

সোমবার (৩০ নভেম্বর) বিকালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বধ্যভূমি ঘুরে এমন চিত্রই দেখা গেছে। সেখানে কথা হয় স্মৃতিস্তম্ভের সামনে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্য অনুভবের সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশের দায়িত্ব পালন করি। পাশাপাশি বধ্যভূমির স্মৃতিস্তম্ভের দেখাশুনা করি। করোনার কারণে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকায় দর্শনার্থী কম আসে। প্রতিদিন আনুমানিক ২০-৩০ জন আসেন ঘুরে দেখতে।’

রাবির বধ্যভূমি
সমতল থেকে বেশ খানিকটা জায়গা উঁচু করে বানানো হয়েছে বধ‌্যভূমিটি। এর ভেতরে একটি বড় কূপকে ঘিরে বানানো হয়েছে কংক্রিটের গোলাকার বেদি। কূপের গভীর থেকে মাথা তুলে দাঁড়িয়ে আছে ৪২ ফুট উঁচু ইটের স্তম্ভ। এ স্তম্ভটি বাঙালির মুক্তিযুদ্ধের এক টুকরো ইতিহাস। পাকিস্তানি বাহিনী আর তাদের এ দেশীয় দোসরদের নারকীয় হত্যাযজ্ঞের ভয়াল স্মৃতি। নাম না জানা অসংখ্য শহীদের আত্মত্যাগের সাক্ষী হয়ে দাঁড়িয়ে আছে বধ্যভূমির স্মৃতিস্তম্ভটি।
অপূর্ব রায়, শাকিল কুমার রায়, মনোতোষ বর্মণ, শুভ রায় ও নিরুপম পাঁচ বন্ধু স্মৃতিস্তম্ভ ঘুরে সেলফি তুলছেন। বধ‌্যভূমি সম্পর্কে তারা কিছু জানে কিনা জানতে চাওয়া হলে বলেন,  নাম না জানা অসংখ্য শহীদের জন্য এই স্মতিস্তম্ভটি তৈরি করা হয়েছে। আমরা এতদিন বিভিন্ন মাধ্যমে পড়েছি। কিন্তু দেখা হয়নি। তাই ঠাকুরগাঁও থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে এবার ভর্তি পরীক্ষা দেওয়ার জন্য রাজশাহীতে এসেছি। সুযোগ পেয়ে বিকালে আমরা পাঁচজন মিলে বধ্যভূমির স্মৃতিস্তম্ভটি ঘুরে দেখলাম।

রাবির বধ্যভূমি
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগোল ও পরিবেশ বিদ্যা বিভাগের শিক্ষার্থী ফাহমিদা আরা ঝিলিক তার শ্বশুর আব্দুল খালেকসহ তার বান্ধবীদের নিয়ে ঘুরতে এসেছেন। তিনি জানালেন, বধ্যভূমি অসাধারণ একটা জায়গা। আমি ১ বছর ৩ মাস পর আসলাম। স্মতিময় জায়গা দেখে আগের মতোই ভালো লাগছে।
গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ থেকে এসেছেন রেজওয়ানুর রহমান। বধ্যভূমি সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘এটা হচ্ছে একটা গণকবর, এখানে মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তানি বাহিনীর হাতে হত্যা হওয়া অপরিচিতি শহীদদের স্মরণে এই বধ্যভূমি তৈরি করা হয়। এই ইতিহাস আগে থেকেই জানতাম। কিন্তু চোখ দিয়ে দেখার জন্য এখানে আসা।’ 

রাবির বধ্যভূমি
রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার সামিউল ইসলাম বলেন, ‘জীবনের প্রথমবার বধ্যভূমি দেখতে এসেছি। এসে আমার অনেক ভালো লেগেছে এবং অনেক তথ্য জানতে পেরেছি। আমি মনে করি এটার সংস্কার দরকার।’
নগরীর উপশহর এলাকার বাসিন্দা এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র মোস্তাক আহমেদও জানালেন, ছয়বার এখানে এসেছি। বধ্যভূমি সংস্কার করা দরকার।

বধ্যভূমি


বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ স্মৃতি সংগ্রহশালা সূত্রে জানা গেছে, ১৯৭২ সালের ২৩ এপ্রিল আবিষ্কৃত একটি গণকবরের ওপর স্মৃতিস্তম্ভটি নির্মাণ করা হয়। সেসময় মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম এবং স্থানীয় কন্ট্রাক্টর জেবর মিয়া গণকবরটি খনন করেন। মৃত্যুকূপ থেকে বেরিয়ে আসে হাজারো মানুষের মাথার খুলি ও কঙ্কাল। মুক্তিযুদ্ধের সময় শহীদ শামসুজ্জোহা হল ছিল পাকিস্তানি বাহিনীর ঘাঁটি। ৯ মাস ধরে পাকিস্তানি বাহিনী এবং রাজাকার ও আল-বদররা বিশ্ববিদ্যালয়ের পার্শ্ববর্তী কাটাখালি, মাসকাটা দীঘি, চৌদ্দপাই, শ্যামপুর, ডাশমারী, তালাইমারী, রানীনগর ও কাজলার কয়েক হাজার নারী-পুরুষকে এখানে ধরে এনে হত্যা করে। তাদের হাত থেকে রেহাই পাননি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক, ছাত্র, কর্মচারী এবং তাদের পরিবারের সদস্যরাও। এই হলের পেছনে এক বর্গমাইল এলাকাজুড়ে ছিল বধ্যভূমি। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন কাজলা এলাকা এবং রেলওয়ে স্টেশন এলাকায় পাওয়া যায় আরও কয়েকটি গণকবর।

 

/এসটি/এমএমজে/

সম্পর্কিত

বঙ্গবন্ধু মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম টিকা নিলেন ভিসি

বঙ্গবন্ধু মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম টিকা নিলেন ভিসি

করোনা শনাক্তের সংখ্যা ১০ কোটি ১৪ লাখ ছাড়িয়েছে

করোনা শনাক্তের সংখ্যা ১০ কোটি ১৪ লাখ ছাড়িয়েছে

গ্রাহকের টাকা তুলে নেওয়ায় ব্যাংক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

গ্রাহকের টাকা তুলে নেওয়ায় ব্যাংক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

ক্ষমা চাইলেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী

ক্ষমা চাইলেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী

জঙ্গিরা আত্মসমর্পণ করলে পুনর্বাসন করা হবে: র‌্যাব

জঙ্গিরা আত্মসমর্পণ করলে পুনর্বাসন করা হবে: র‌্যাব

প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা, পিটুনি খেয়ে মুরগি ব্যবসায়ী হাসপাতালে

প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা, পিটুনি খেয়ে মুরগি ব্যবসায়ী হাসপাতালে

চাকরি করায় স্ত্রীকে খুন করে সাদ্দাম

চাকরি করায় স্ত্রীকে খুন করে সাদ্দাম

লন্ডনে করোনায় ৯ বাংলাদেশির মৃত্যু

লন্ডনে করোনায় ৯ বাংলাদেশির মৃত্যু

স্ত্রীকে হত্যার দায়ে এক ব্যক্তির মৃত্যুদণ্ড

স্ত্রীকে হত্যার দায়ে এক ব্যক্তির মৃত্যুদণ্ড

‘আগে নিলে বলবে কাউকে দিলো না’

‘আগে নিলে বলবে কাউকে দিলো না’

২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ১৭, শনাক্ত ৫২৮

২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ১৭, শনাক্ত ৫২৮

কারা আগে টিকা পাবেন জানালেন প্রধানমন্ত্রী

কারা আগে টিকা পাবেন জানালেন প্রধানমন্ত্রী

সর্বশেষ

দৌলতপুরে পাট গোডাউনে আগুন, এখনও চলছে ডাম্পিং

দৌলতপুরে পাট গোডাউনে আগুন, এখনও চলছে ডাম্পিং

বঙ্গবন্ধু মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম টিকা নিলেন ভিসি

বঙ্গবন্ধু মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম টিকা নিলেন ভিসি

হাসপাতালে লাতিন আমেরিকার শীর্ষ ধনী কার্লোস স্লিম

হাসপাতালে লাতিন আমেরিকার শীর্ষ ধনী কার্লোস স্লিম

প্রাথমিকের তদন্ত দায়সারা, কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণের উদ্যোগ

প্রাথমিকের তদন্ত দায়সারা, কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণের উদ্যোগ

করোনা শনাক্তের সংখ্যা ১০ কোটি ১৪ লাখ ছাড়িয়েছে

করোনা শনাক্তের সংখ্যা ১০ কোটি ১৪ লাখ ছাড়িয়েছে

কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার প্রথমবার্ষিকী, দুটি দেশকে বঙ্গবন্ধুর বার্তা

কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার প্রথমবার্ষিকী, দুটি দেশকে বঙ্গবন্ধুর বার্তা

সন্ত্রাসী হামলার আশঙ্কায় সতর্কতার মাত্রা বাড়ালো যুক্তরাষ্ট্র

সন্ত্রাসী হামলার আশঙ্কায় সতর্কতার মাত্রা বাড়ালো যুক্তরাষ্ট্র

কাউন্সিলর সাত্তার কারাগারে, পিবিআই’র রিমান্ড আবেদন

যুবলীগ নেতা জিল্লুর হত্যাকাউন্সিলর সাত্তার কারাগারে, পিবিআই’র রিমান্ড আবেদন

সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৮, পাঁচ জনই মোটরসাইকেল আরোহী

সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৮, পাঁচ জনই মোটরসাইকেল আরোহী

যশোরে হত্যা মামলায় একজনের যাবজ্জীবন

যশোরে হত্যা মামলায় একজনের যাবজ্জীবন

সংবর্ধনা সভায় ৩১ জানুয়ারি আধাবেলা হরতাল ডাকলেন কাদের মির্জা

সংবর্ধনা সভায় ৩১ জানুয়ারি আধাবেলা হরতাল ডাকলেন কাদের মির্জা

নৌকার নির্বাচনি অফিসে আগুন: আ.লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক গ্রেফতার

নৌকার নির্বাচনি অফিসে আগুন: আ.লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক গ্রেফতার

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গ্রাহকের টাকা তুলে নেওয়ায় ব্যাংক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

গ্রাহকের টাকা তুলে নেওয়ায় ব্যাংক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

জঙ্গিরা আত্মসমর্পণ করলে পুনর্বাসন করা হবে: র‌্যাব

জঙ্গিরা আত্মসমর্পণ করলে পুনর্বাসন করা হবে: র‌্যাব

প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা, পিটুনি খেয়ে মুরগি ব্যবসায়ী হাসপাতালে

প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা, পিটুনি খেয়ে মুরগি ব্যবসায়ী হাসপাতালে

চাকরি করায় স্ত্রীকে খুন করে সাদ্দাম

চাকরি করায় স্ত্রীকে খুন করে সাদ্দাম

স্ত্রীকে হত্যার দায়ে এক ব্যক্তির মৃত্যুদণ্ড

স্ত্রীকে হত্যার দায়ে এক ব্যক্তির মৃত্যুদণ্ড

ত্রিমুখী সংঘর্ষে ১৫ পুলিশ সদস্যসহ অর্ধশতাধিক আহত

পাথরঘাটা পৌর নির্বাচনত্রিমুখী সংঘর্ষে ১৫ পুলিশ সদস্যসহ অর্ধশতাধিক আহত

মুন্সীগঞ্জে ৪৮০০ ভায়াল টিকা বরাদ্দ  

মুন্সীগঞ্জে ৪৮০০ ভায়াল টিকা বরাদ্দ  

দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষ, আহত ১০

দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষ, আহত ১০

নির্বাচন হয়, ভোটার ভোট দিতে পারে না: মিনু

নির্বাচন হয়, ভোটার ভোট দিতে পারে না: মিনু

নৌকার প্রার্থীকে প্রত্যাখ্যান, স্বতন্ত্রের পক্ষে পাবনা আ.লীগ নেতাকর্মীরা

নৌকার প্রার্থীকে প্রত্যাখ্যান, স্বতন্ত্রের পক্ষে পাবনা আ.লীগ নেতাকর্মীরা


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.