সেকশনস

সিভিল সার্জন অফিসে ঘুষ না দিলে মেলে না লাইসেন্স!

আপডেট : ২৭ নভেম্বর ২০২০, ১০:০০

ময়মনসিংহ সিভিল সার্জন অফিস

ময়মনসিংহ সিভিল সার্জন অফিসে ঘুষ ছাড়া মিলছে না বেসরকারি ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের লাইসেন্স। অফিসের টেবিলে টেবিলে ঘুষ না দিলে কোনও কাজই হচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন বেসরকারি ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিকরা। সম্প্রতি সরকার অবৈধ বেসরকারি ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারগুলোর তালিকা করে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে এগুলো বন্ধ করে দেওয়ার ঘোষণা দেওয়ার পরপরই লাইসেন্স করতে মরিয়া হয়ে এসব প্রতিষ্ঠানের মালিকরা ছুটছেন সিভিল সার্জন অফিসে। আর এই ঘোষণাকে কাজে লাগিয়ে এই অফিসের সুযোগ সন্ধানী কর্মচারীরা নেমেছেন ঘুষ বাণিজ্যে, লাইসেন্স পাইয়ে দেওয়ার নামে হাতিয়ে নিচ্ছেন লাখ লাখ টাকা। বিশেষ করে এই অফিসের অফিস সহকারী জাকির হোসেনের নাম এখানে সবার মুখে মুখে। নতুন লাইসেন্স বা নবায়নের জন্য গেলে অফিস খরচ, সিভিল সার্জনের পরিদর্শন এমনকি ঢাকা স্বাস্থ্য অধিদফতরের খরচ ধরে তিনি দাবি করছেন মোটা অঙ্ক। আবার ঘুষ দিয়েও সময়মতো লাইসেন্স না পেয়ে অনেকেই সিভিল সার্জন অফিসে গিয়ে কর্মচারীদের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ছেন বাদানুবাদে।  

গত সোমবার (২৩ নভেম্বর) দুপুরে সরেজমিনে সিভিল সার্জন কার্যালয়ের লাইসেন্স শাখায় গিয়ে দেখা যায়, মহানগরীর চরপাড়ার নিউ মেট্রো ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিক আব্দুর রাজ্জাক এসে অফিস সহকারী মো. জাকির হোসেনের কাছে জানতে চাইছেন, ৫০ হাজার টাকা দেওয়ার পরও তার ডায়াগনস্টিক সেন্টারের লাইসেন্স কেন হচ্ছে না? এই নিয়ে দু’জনের মধ্যে বাকবিতণ্ডা শুরু হয়। সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে আব্দুর রাজ্জাক জানান, তার ডায়াগনস্টিক সেন্টারের লাইসেন্স করিয়ে দেওয়ার জন্য অফিস, সিভিল সার্জনের পরিদর্শন, ঢাকা স্বাস্থ্য অধিদফতরের খরচ ইত্যাদির নামে অফিস সহকারী জাকির হোসেন তার কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা ঘুষ নিয়েছেন। কিন্তু, এক বছর পার হয়ে গেলেও এখনও কাজ করে না দিয়ে শুধু তালবাহানা করে যাচ্ছেন জাকির। এই কারণে অফিসে এসে তার কাছে জানতে চাইছি কবে নাগাদ লাইসেন্স পাওয়া যাবে?

সিভিল সার্জন অফিসে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ উঠেছে অফিস সহকারী জাকির হোসেনের বিরুদ্ধে।

মেট্রো ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিক আরও জানান, শুধু তিনি নন, নতুন লাইসেন্স ও নবায়নের জন্য অধিকাংশ ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিকের কাছ থেকে জাকির হোসেন ঘুষ নিয়েছেন।

১৬৮, চরপাড়া প্রাইমারি স্কুল রোডের ম্যাক্স মেডিক্যাল সেন্টারের মালিক আব্দুল বারী জানান, এক বছর ধরে তিনি তার প্রতিষ্ঠান চালু করেছেন। লাইসেন্সের জন্য অফিস সহকারী মো. জাকির হোসেনকে ৪০ হাজার টাকা দিয়েছেন। গত এক বছর আগে সিভিল সার্জনকে দিয়ে পরিদর্শন কাজ শেষ করেছেন কিন্তু এখনও লাইসেন্স পাননি তারা।

তিনি আরও জানান, সরকার অবৈধ ক্লিনিকে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার ঘোষণা দেওয়ায় আমাদের মাঝে আতঙ্ক কাজ করছে। টাকা দিয়েও সময়মতো লাইসেন্স পাওয়া যাচ্ছে না বলে অভিযোগ তার।

ব্রাহ্মপল্লী রোডের বসুন্ধরা হাসপাতালের পরিচালক পরিষদের সদস্য আব্দুল ওয়াহেদ জানান, নতুন লাইসেন্স কিংবা নবায়নের জন্য সিভিল সার্জন অফিসে খরচ বাবদ ঘুষ দিতে বাধ্য হতে হয়। সরাসরি সিভিল সার্জনের বিরুদ্ধে এ বিষয়ে কোনও অভিযোগ নেই। তবে সিভিল সার্জন নিজ হাতে কারও কাছ থেকে টাকা না নিলেও অফিস সহকারী জাকির হোসেনের মাধ্যমে লেনদেন হচ্ছে। এখানে টাকা না দিয়ে সহজে কেউ কোনও লাইসেন্স পায় না বলেও অভিযোগ করেন তিনি। আর এসব জেনেও সিভিল সার্জন কোনও ব্যববস্থা নেন না।

চরপাড়ার মেট্রো ডায়াগনস্টিক সেন্টার

তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করে অফিস সহকারী মো. জাকির হোসেন জানান,  নতুন লাইসেন্স আর নবায়নের জন্য কারও কাছ থেকে কোনও টাকা নেওয়া হয় না। ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিকরা নিজেরা কম্পিউটার দোকান থেকে অনলাইনে আবেদন করলে স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পরিদর্শনের জন্য সিভিল সার্জনকে চিঠি দেওয়া হয়। এরপর সিভিল সার্জন পরিদর্শন করে রিপোর্ট দিয়ে থাকেন। অনেকে অভিযোগ করলেও নিজে কারও কাছ থেকে টাকা নেওয়ার কথা সরাসরি অস্বীকার করেন তিনি।

খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, ময়মনসিংহ জেলায় বেসরকারি ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের সংখ্যা পাঁচ শতাধিক। কিন্তু, হাল নাগাদ লাইসেন্সধারী হচ্ছে ১৭৯টি। ফলে সরকার ঘোষিত ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানের ভয়ে লাইসেন্স গ্রহণের আবেদন করছে বেশিরভাগ ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার। তবে এসব প্রতিষ্ঠানের বেশিরভাগই সরকারি নিয়মনীতি পুরোপুরি অনুসরণ না করায় অনুমোদন পাওয়ার ব্যাপারে সন্দিহান। তাই বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠান অনুমোদন পাওয়ার সর্টকাট উপায় খুঁজছে। এ সুযোগটাই কাজে লাগাচ্ছে সিভিল সার্জন অফিসের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।

সিভিল সার্জনের নাম এই লেনদেনে জড়িত না থাকলেও তার অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা এই দুর্নীতিতে জড়িত থাকার পরেও তিনি কেন ব্যবস্থা নিচ্ছেন না সে বিষয়ে রয়েছে নানা প্রশ্ন।

সিভিল সার্জন অফিসে ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিকপক্ষের ফরম পূরণের কাজ চলছে অফিস সহকারী জাকির হোসেনের টেবিলে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ময়মনসিংহের সিভিল সার্জন ডা. এবিএম মসিউল আলম জানান, লাইসেন্স পেতে পরিদর্শনের জন্য অফিসের কেউ টাকা নিচ্ছে কিনা এটা তার জানা নাই। তবে তার কাছে অভিযোগ করলে বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন।

বাংলাদেশ প্রাইভেট ক্লিনিক ডায়াগনস্টিক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন  ময়মনসিংহ শাখার সভাপতি ডা. হরি শংকর দাশ জানান, সহজে লাইসেন্স পেতে সিভিল সার্জন ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিকদের নিয়ে দুই দফায় সভা করেছেন। তবে লাইসেন্স পেতে টাকা লাগে এ ধরনের কথা শোনা যায়। কিন্তু, এ বিষয়ে কোনও ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিক কখনও অভিযোগ করে না। তাই যাচাই করা সম্ভব হয় না।

এদিকে স্বাস্থ্য বিভাগের ময়মনসিংহ বিভাগীয় পরিচালক ডা. শাহ আলম বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, টাকা নেওয়ার বিষয়ে অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

/টিএন/

সম্পর্কিত

সিসি ক্যামেরার জালে আটকা অপরাধীরা!

সিসি ক্যামেরার জালে আটকা অপরাধীরা!

একজন স্বাস্থ্যকর্মীকে দিয়েই ২৭ জানুয়ারি শুরু হচ্ছে করোনার টিকা প্রয়োগ

একজন স্বাস্থ্যকর্মীকে দিয়েই ২৭ জানুয়ারি শুরু হচ্ছে করোনার টিকা প্রয়োগ

বিদ্যালয় খুললে তিন ফুট দূরত্ব মেনে ক্লাস

বিদ্যালয় খুললে তিন ফুট দূরত্ব মেনে ক্লাস

মশার ওষুধ ঠিক আছে তো?

মশার ওষুধ ঠিক আছে তো?

কোম্পানীগঞ্জে রবিবার অর্ধদিবস হরতাল

ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে কটূক্তিকোম্পানীগঞ্জে রবিবার অর্ধদিবস হরতাল

সংক্রমণ কমছে, করোনা হটানোর এটাই সুযোগ!

সংক্রমণ কমছে, করোনা হটানোর এটাই সুযোগ!

উপমহাদেশের স্বার্থে পাকিস্তানের স্বীকৃতি জরুরি

উপমহাদেশের স্বার্থে পাকিস্তানের স্বীকৃতি জরুরি

‘জীবনেও ভাবি নাই পাক্কা ঘরে ঘুমামু’

‘জীবনেও ভাবি নাই পাক্কা ঘরে ঘুমামু’

ঘর 'আপন' হওয়ার আগে আগলে রাখছেন তারা

ঘর 'আপন' হওয়ার আগে আগলে রাখছেন তারা

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে মানতে হবে যে সব বিষয়

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে মানতে হবে যে সব বিষয়

সাংবাদিক আফজালের মৃত্যুতে ডিএনসিসি মেয়রের শোক

সাংবাদিক আফজালের মৃত্যুতে ডিএনসিসি মেয়রের শোক

সেই কিশোরীকে হস্তান্তরে কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি

সেই কিশোরীকে হস্তান্তরে কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি

সর্বশেষ

বনানীতে মরদেহ উদ্ধার, পরিচয় খুঁজছে পুলিশ

বনানীতে মরদেহ উদ্ধার, পরিচয় খুঁজছে পুলিশ

ভারতের ভ্যাকসিন উপহার পেয়ে মানুষ অনেক খুশি: জিএম কাদের

ভারতের ভ্যাকসিন উপহার পেয়ে মানুষ অনেক খুশি: জিএম কাদের

বিনামূল্যে বসতঘর উপহার বিশ্বে নতুন সূচনা: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

বিনামূল্যে বসতঘর উপহার বিশ্বে নতুন সূচনা: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ প্রতিরক্ষামন্ত্রী অস্টিন

যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ প্রতিরক্ষামন্ত্রী অস্টিন

থ্রিডি সিনেমার নায়িকা নায়লা নাঈম!

থ্রিডি সিনেমার নায়িকা নায়লা নাঈম!

চীন না কমালে ভারতও সীমান্তে সেনা কমাবে না: রাজনাথ

চীন না কমালে ভারতও সীমান্তে সেনা কমাবে না: রাজনাথ

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে শেখ হাসিনা

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে শেখ হাসিনা

তালেবানের সঙ্গে ট্রাম্পের চুক্তি পুনর্মূল্যায়ন করবেন বাইডেন

তালেবানের সঙ্গে ট্রাম্পের চুক্তি পুনর্মূল্যায়ন করবেন বাইডেন

বার্লিন স্পটলাইটে ভিন্ন ভূমিকায় কামার

বার্লিন স্পটলাইটে ভিন্ন ভূমিকায় কামার

পিএসজিতে নেইমারের ‘সেঞ্চুরি’

পিএসজিতে নেইমারের ‘সেঞ্চুরি’

নেতাকর্মী ও জনপ্রতিনিধিদের সীমারেখা মেনে চলার আহ্বান ওবায়দুল কাদেরের

নেতাকর্মী ও জনপ্রতিনিধিদের সীমারেখা মেনে চলার আহ্বান ওবায়দুল কাদেরের

রাজধানীতে আনসার আল ইসলামের ৫ সদস্য গ্রেফতার

রাজধানীতে আনসার আল ইসলামের ৫ সদস্য গ্রেফতার

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

কোম্পানীগঞ্জে রবিবার অর্ধদিবস হরতাল

ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে কটূক্তিকোম্পানীগঞ্জে রবিবার অর্ধদিবস হরতাল

‘জীবনেও ভাবি নাই পাক্কা ঘরে ঘুমামু’

‘জীবনেও ভাবি নাই পাক্কা ঘরে ঘুমামু’

হেলিকপ্টারে চড়ে গার্মেন্টকর্মীর বিয়ে!

হেলিকপ্টারে চড়ে গার্মেন্টকর্মীর বিয়ে!

অবস্থান ধর্মঘটে কাদের মির্জা  

অবস্থান ধর্মঘটে কাদের মির্জা  

ওবায়দুল কাদেরকে ‘রাজাকার পরিবারের সদস্য’ বললেন এমপি একরামুল

ওবায়দুল কাদেরকে ‘রাজাকার পরিবারের সদস্য’ বললেন এমপি একরামুল

হিলিতে অন্যান্য টিকার সঙ্গে করোনার ভ্যাকসিন সংরক্ষণের প্রস্তুতি

হিলিতে অন্যান্য টিকার সঙ্গে করোনার ভ্যাকসিন সংরক্ষণের প্রস্তুতি

বান্দরবানে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পিকআপ খাদে, নিহত ৩

বান্দরবানে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পিকআপ খাদে, নিহত ৩

নেত্রকোনায় মুজিববর্ষের  ঘর নির্মাণে  অনিয়মের অভিযোগ

নেত্রকোনায় মুজিববর্ষের ঘর নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ

ভাঙ্গায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪

ভাঙ্গায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪

পৃথক দুর্ঘটনায় নারীসহ নিহত ২

পৃথক দুর্ঘটনায় নারীসহ নিহত ২


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.