X

সেকশনস

ওটিতে রোগীর পেট কেটে সেলাই না করেই ভেগে গেলেন ডাক্তার

আপডেট : ২৩ নভেম্বর ২০২০, ০৪:১৮

পটুয়াখালী

পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার একটি বেসরকারি হাসপাতালে অপারেশন থিয়েটারে রোগীর পেট কেটে সেলাই না করেই ভেগে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে আহম্মেদ কামাল তুষার নামে এক চিকিৎসকের বিরুদ্ধে। টিউমার অপারেশনের নামে ওই নারীর জরায়ু কেটে ফেলেছেন ওই চিকিৎসক এমন দাবিও করেছেন রোগীর স্বজনরা। মোছা. খাদিজা বেগম (৪০) নামের ওই রোগীর অবস্থা এখন আশঙ্কাজনক।

রবিবার (২২ নভেম্বর) দুপুর ২টার দিকে বাউফল উপজেলার কালিশুরী ইউনিয়নে অবস্থিত স্লোব বাংলাদেশ নামের একটি বেসরকারি হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে।

মোসা. খাদিজা বেগম বাউফল উপজেলার কেশবপুর ইউনিয়নের মমিনপুর গ্রামের জেলে সহিদুল ইসলাম সিকদারের স্ত্রী ও পাঁচ সন্তানের জননী।

জানা যায়, খাদিজা বেগম গত কয়েক দিন ধরে পেটের ব্যথায় ভুগছিলেন। তার স্বামী শনিবার বিকাল ৪ টার দিকে তাকে কালিশুরীর স্লোব বাংলাদেশ নামের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করান।  চিকিৎসক আহমেদ কামাল তুষার পরীক্ষা নিরীক্ষার পর জানান, ওই গৃহবধূর পেটে টিউমার হয়েছে, অপারেশন করতে হবে।

হাসপাতালের একটি সূত্র জানায়,  রবিবার দুপুর ২টার দিকে গৃহবধূ খাদিজা বেগমের টিউমার অপসারণের করার জন্য তাকে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে চিকিৎসক আহম্মেদ কামাল তুষার রোগীর অপারেশন করতে গিয়ে পেট, নিতম্ব ও জরায়ুর অনেকটা অংশ কেটে ফেলেন।  এসময় রোগীর শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তিনি ভয় পেয়ে রোগীর পেট সেলাই না করেই তাকে অপারেশন থিয়েটারে ফেলে রেখেই পালিয়ে যান। রোগী ব্যথায়  ভয়াবহ চিৎকার দিতে থাকলে অনেক পরে কয়েকজন নার্স খাদিজার পেট সেলাই করে দেন।

ওই গৃহবধূর নিকটাত্মীয় জালাল আহম্মেদ বলেন, খাদিজা বেগমের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তিনি তীব্র ব্যথায় কাতরাচ্ছেন। ওই হাসপাতাল থেকে তাকে বরিশাল শেবাচিম  হাসপাতালে নেওয়ার জন্য বলা হয়েছে।

এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট চিকিৎসক আহম্মেদ কামাল তুষারের মোবাইলে ফোন দেওয়া হলেও তা বন্ধ পাওয়া যায়। তবে স্থানীয় একটি গণমাধ্যমের কাছে অপারেশনের সময় জরায়ু কেটে যায়নি বলে তিনি দাবি করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, ‘রোগীর জরায়ু কাটেনি। যদি কেটে থাকে তাহলে আল্ট্রাসোনোগ্রাম করলেই ধরা পড়বে। রোগীর পেটের সামান্য কেটে যখন দেখি তার অবস্থা ভালো না, তখন আমি উন্নত চিকিৎসার পরামর্শ দিয়ে আসি। আমি পালিয়ে আসিনি।’ তার এ বক্তব্যেও পরিষ্কার, তিনি রোগীর পেটের অংশ বিশেষ কেটে তা সেলাই না করেই অপারেশন থিয়েটার থেকে বের হয়ে চলে গেছেন।

জেলা সিভিল সার্জন মো. জাহাঙ্গীর আলম সিপন বলেন, এই ঘটনা আমি শুনেছি। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত হাতুড়ে ও ভুয়া চিকিৎসকের কারণে পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলা বর্তমানে গণমাধ্যমে ভীষণ আলোচিত। প্রশাসনের সাম্প্রতিক তদন্তে দেখা গেছে শুধুমাত্র এই উপজেলাতেই ১৪৪ জন ভুয়া ডাক্তার রয়েছে।  এ উপজেলায় পরপর ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যু, ডাক্তারের হাতে প্রসূতির মৃত্যু, অন্তঃসত্ত্বা রোগীর খাদ্যনালী কাটার ঘটনা ঘটেছে। এরপরই টিউমার অপারেশন করতে গিয়ে এ ঘটনা ঘটলো। 

আরও পড়ুন:

এক উপজেলাতেই ১৪৪ জন ভুয়া ডাক্তার!

অন্তঃসত্ত্বা রোগীর খাদ্যনালী কাটার অভিযোগ নার্সের বিরুদ্ধে

দুই প্রসূতির মৃত্যু: ডাক্তার দম্পতিকে অস্ত্রোপচার ও অ্যানেসথেসিয়া না দেওয়ার নির্দেশ  

চিকিৎসক দম্পতির বিরুদ্ধে ভুল চিকিৎসায় আবারও প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ

বন্ধের নির্দেশ দেওয়া ক্লিনিকে সিজারিয়ান অপারেশন, প্রসূতির মৃত্যু 

 

/টিএন/

সম্পর্কিত

চালকের দক্ষতায় বাঁচলো পাঁচ শতাধিক যাত্রী

চালকের দক্ষতায় বাঁচলো পাঁচ শতাধিক যাত্রী

ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ১

ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ১

বরফ কলে সিলিন্ডার বিস্ফোরণ: নিহত ১, আহত অর্ধশতাধিক

ছড়িয়ে পড়েছে বিষাক্ত অ্যামোনিয়া বরফ কলে সিলিন্ডার বিস্ফোরণ: নিহত ১, আহত অর্ধশতাধিক

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার জন্য সুদিন আসছে: পরিকল্পনামন্ত্রী

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার জন্য সুদিন আসছে: পরিকল্পনামন্ত্রী

সৎ মেয়েকে হত্যার দায়ে মায়ের যাবজ্জীবন

সৎ মেয়েকে হত্যার দায়ে মায়ের যাবজ্জীবন

মামলা নিতে থানা ঘেরাও, বন্ধ করা হলো বাস-লঞ্চ চলাচল

মামলা নিতে থানা ঘেরাও, বন্ধ করা হলো বাস-লঞ্চ চলাচল

দেড় লাখ টাকার জাল নোট উদ্ধার

দেড় লাখ টাকার জাল নোট উদ্ধার

সৈকতে গোসলে নেমে প্রাণ গেলো পর্যটকের

সৈকতে গোসলে নেমে প্রাণ গেলো পর্যটকের

গবেষকদের সাফল্য: স্বল্প সময়ে বড় হবে কার্প জাতীয় মাছ

গবেষকদের সাফল্য: স্বল্প সময়ে বড় হবে কার্প জাতীয় মাছ

ধর্ষণ মামলা করে বিপাকে স্কুলছাত্রীর পরিবার

ধর্ষণ মামলা করে বিপাকে স্কুলছাত্রীর পরিবার

সর্বশেষ

উপমহাদেশের স্বার্থে পাকিস্তানের স্বীকৃতি জরুরি

উপমহাদেশের স্বার্থে পাকিস্তানের স্বীকৃতি জরুরি

নতুন ঘর পেয়ে খুশি সুকজান বেগম

নতুন ঘর পেয়ে খুশি সুকজান বেগম

‘জীবনেও ভাবি নাই পাক্কা ঘরে ঘুমামু’

‘জীবনেও ভাবি নাই পাক্কা ঘরে ঘুমামু’

ঘর 'আপন' হওয়ার আগে আগলে রাখছেন তারা

ঘর 'আপন' হওয়ার আগে আগলে রাখছেন তারা

খুবির অস্থিতিশীল পরিবেশ প্রসঙ্গে সাবেক ২৭৩ শিক্ষার্থীর উদ্বেগ

খুবির অস্থিতিশীল পরিবেশ প্রসঙ্গে সাবেক ২৭৩ শিক্ষার্থীর উদ্বেগ

বিদ্যুতের লাইন ছিঁড়ে ঘরে আগুন, প্রতিবন্ধী শিশুসহ নিহত ৪

বিদ্যুতের লাইন ছিঁড়ে ঘরে আগুন, প্রতিবন্ধী শিশুসহ নিহত ৪

‘এত কাজ কেউ করতে পারেনি, জিতলে আরও করবো’

‘এত কাজ কেউ করতে পারেনি, জিতলে আরও করবো’

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে মানতে হবে যে সব বিষয়

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে মানতে হবে যে সব বিষয়

কারাগারে হলমার্কের জিএম এর নারীসঙ্গ: ৩ কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার

কারাগারে হলমার্কের জিএম এর নারীসঙ্গ: ৩ কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার

কারাগারে নারী দর্শনার্থীর সঙ্গে সময় কাটালেন হলমার্কের জিএম

কারাগারে নারী দর্শনার্থীর সঙ্গে সময় কাটালেন হলমার্কের জিএম

বিমানবন্দরে স্বামী-স্ত্রী নিহতের ঘটনায় বাসচালক কারাগারে

বিমানবন্দরে স্বামী-স্ত্রী নিহতের ঘটনায় বাসচালক কারাগারে

কেক কাটা নয়, শুধু দোয়ার আয়োজন করেছি: সম্রাট

শুভ জন্মদিন নায়করাজ রাজ্জাককেক কাটা নয়, শুধু দোয়ার আয়োজন করেছি: সম্রাট

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

চালকের দক্ষতায় বাঁচলো পাঁচ শতাধিক যাত্রী

চালকের দক্ষতায় বাঁচলো পাঁচ শতাধিক যাত্রী

ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ১

ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ১

বরফ কলে সিলিন্ডার বিস্ফোরণ: নিহত ১, আহত অর্ধশতাধিক

ছড়িয়ে পড়েছে বিষাক্ত অ্যামোনিয়া বরফ কলে সিলিন্ডার বিস্ফোরণ: নিহত ১, আহত অর্ধশতাধিক

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার জন্য সুদিন আসছে: পরিকল্পনামন্ত্রী

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার জন্য সুদিন আসছে: পরিকল্পনামন্ত্রী

সৎ মেয়েকে হত্যার দায়ে মায়ের যাবজ্জীবন

সৎ মেয়েকে হত্যার দায়ে মায়ের যাবজ্জীবন

মামলা নিতে থানা ঘেরাও, বন্ধ করা হলো বাস-লঞ্চ চলাচল

মামলা নিতে থানা ঘেরাও, বন্ধ করা হলো বাস-লঞ্চ চলাচল

দেড় লাখ টাকার জাল নোট উদ্ধার

দেড় লাখ টাকার জাল নোট উদ্ধার

সৈকতে গোসলে নেমে প্রাণ গেলো পর্যটকের

সৈকতে গোসলে নেমে প্রাণ গেলো পর্যটকের


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.