X

সেকশনস

২০২১ সালে ২৫০ উপজেলায় চালু হবে মিড-ডে মিল

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২০, ১৫:২০

শুরু হচ্ছে মিড-ডে মিল আগামী বছর থেকে সারা দেশের ৬৫ হাজার ৬২০টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মিড-ডে মিল কার্যক্রম শুরু করবে সরকার। পর্যায়ক্রমে সব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এ কার্যক্রমের আওতায় আসবে ২০২৩ সালে। প্রথম বছর ২০২১ সালে কার্যক্রম চালু হবে ২৫০ উপজেলায়। বর্তমানে দেশের ১৬টি উপজেলায় মিড-ডে মিল চালু আছে।

এ প্রসঙ্গে স্কুল ফিডিং প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক অতিরিক্ত সচিব মো. রফিকুল আমিন খান বলেন, ‘২০২১ সালে ২৫০টি উপজেলায় এই কার্যক্রম শুরু হবে। পরের বছর আরও ১০০ উপজেলা যুক্ত হবে এই কার্যক্রমের সঙ্গে। শেষ বছর ২০২৩ সালে বাকি সব প্রাথমিক বিদ্যালয় এ প্রকল্পের অন্তর্ভুক্ত হবে।’

এর আগে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. আকরাম-আল-হোসেন বলেছিলেন, ‘১৯ হাজার ২৮২ কোটি টাকার প্রকল্প পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে জমা দিয়েছি। আগামী বছর ৬৫ হাজার ৬২০টি স্কুলে মিড-ডে মিল চালু করবো। তিন দিন রান্না করা খাবার, তিন দিন বিস্কুট দেওয়া হবে।’

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, স্কুল মিল কর্মসূচির আওতায় উপজেলা নির্বাচন করা হবে দারিদ্র্য ম্যাপ অনুযায়ী। করোনার কারণে এখনও উপজেলা নির্বাচন সম্পন্ন হয়নি। দরিদ্র শিক্ষার্থীদের স্কুলে নেওয়া, প্রান্তিক এলাকায় শিক্ষার্থীদের এনরোলমেন্ট বাড়ানোর জন্য উপজেলা বাছাই করা হবে। এই প্রকল্পে ইবতেদায়ি মাদ্রাসা শিক্ষার্থীরা অন্তর্ভুক্ত থাকবে না। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ ইতবেদায়ি মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের মিড-ডে মিল কর্মসূচি বাস্তবায়ন করবে।

মিড-ডে মিল কার্যক্রম নিয়ে গণসাক্ষরতা অভিযানের উপ-পরিচালক কে এম এনামুল হক বলেন, ‘সরকারের এই উদ্যোগকে আমরা সাধুবাদ জানাই। এটি অত্যন্ত সময়োপযোগী কার্যক্রম। একই সঙ্গে আমরা চাই দেশের সব ধরনের প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মিড-ডে মিল চালু করা হোক। বিশেষ করে দরিদ্র জনগোষ্ঠীর শিশুরা যেখানে লেখাপড়া করে তারা এই কার্যক্রমের অন্তর্ভুক্ত থাকবে। সেকেন্ড চান্স এডুকেশন ও উপানুষ্ঠানিক শিক্ষাসহ সমাজের প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর সন্তানরা যেসব বিদ্যালয়ে লেখাপড়া করে, তাদের এই কার্যক্রমের আওতায় নিতে হবে।’

মন্ত্রণালয় স্কুল ফিডিং প্রকল্পের আওতায় দেশের ১০৪ উপজেলার প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের জন্য উচ্চ পুষ্টিমানসমৃদ্ধ বিস্কুট এবং মিড-ডে মিল কার্যক্রমের আওতায় ১৬ উপজেলায় চাল, ডাল ও ভোজ্যতেল বাড়ি বাড়ি গিয়ে পৌঁছে দিচ্ছে সরকার। স্কুল ফিডিং প্রকল্পের আওতাধীন ১০৪টি উপজেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে মাথাপিছু ২৫ থেকে ৫০ প্যাকেট বিস্কুট দেওয়া হচ্ছে। আর মিড-ডে মিলের জন্য মজুত যেসব চাল, ডাল রয়েছে তা বিতরণ করা হচ্ছে। করোনার কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় এই পদক্ষেপ নেয় সরকার।

গত ২০ জুলাই কুড়িগ্রামের রৌমারীতে জুন ও জুলাই মাসের সংরক্ষণ করা স্কুল ফিডিং প্রকল্পের বিস্কুট ও মিড-ডে মিলের চাল, ডাল ও ভোজ্যতেল বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন বলেন, ‘মুজিববর্ষ উপলক্ষে রান্নাকরা খাবার ও উচ্চ পুষ্টিমানসমৃদ্ধ ফর্টিফাইড বিস্কুট দেশের ১৬ উপজেলার মোট ২ হাজার ২৫৬টি বিদ্যালয়ের ৪ লাখ ২৯ হাজার ৩৪৬ শিক্ষার্থীর মাঝে প্রতি স্কুল দিবসে পরিবেশন করা হচ্ছিল। কিন্তু কোভিড-১৯-এর প্রাদুর্ভাবের পরিপ্রেক্ষিতে বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে বিস্কুট সরবরাহ কার্যক্রম হাতে নেওয়া হয়েছে। জাতীয় স্কুল মিল নীতি-২০১৯ অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এই মিল নীতির আওতায় ২০২৩ সালের মধ্যে পর্যায়ক্রমে দেশের সকল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ কার্যক্রম চালু করা হবে।’

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর সূত্র জানিয়েছে, স্কুল ফিডিং প্রকল্পের আওতায় দেশের দারিদ্র্যপীড়িত এলাকায় বিস্কুট বিতরণ কর্মসূচি চালু করা হয় ২০১০ সাল থেকে। দফায় দফায় বাড়িয়ে বর্তমানে ১০৪ উপজেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বিস্কুট বিতরণ করা হচ্ছে।

এই প্রকল্প শুরুর পর থেকে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি ও লেখাপড়ায় মনোযোগ বাড়লে বরগুনার বামনা, জামালপুরের ইসলামপুর এবং বান্দরবানের লামা উপজেলায় ডব্লিউএফপি’র সহযোগিতায় ২০১৩ সাল থেকে পাইলট প্রকল্প হিসেবে মিড-ডে মিল বা দুপুরে রান্নাকরা খাবার বিতরণ করা হয়। এই পাইলট প্রকল্প ফলপ্রসূ হওয়ার পর জাতীয় মিড-ডে মিল নীতিমালা-২০১৯-এর আওতায় দেশের ১৬টি উপজেলায় দুপুরে রান্নাকরা খাবার বিতরণ কার্যক্রম শুরু করে সরকার।

স্কুল মিল কর্মসূচির আওতায় উপজেলা নির্বাচন করা হয়েছে দারিদ্র্য ম্যাপ অনুযায়ী। সরকারি এই কার্যক্রমে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের খাবার দেওয়া হচ্ছে কুড়িগ্রাম জেলার রৌমারী ও রাজিবপুর, দিনাজপুরের ফুলবাড়ি, পাবনার বেড়া, নওগাঁ জেলার পোরশা, গাইবান্ধার সাঘাটা, শেরপুরের নালিতাবাড়ি, জামালপুরের ইসলামপুর, পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া ও কাউখালী, গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া, যশোরের ঝিকরগাছা, খুলনার বাটিয়াঘাটা, বরগুনার বামনা, লক্ষ্মীপুর জেলার সদর উপজেলা এবং সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলায়।

আরও পড়ুন-

৬৫ হাজার প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শুরু হচ্ছে মিড-ডে মিল কার্যক্রম

 

/এফএএন/এমওএফ/

সম্পর্কিত

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে মানতে হবে যে সব বিষয়

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে মানতে হবে যে সব বিষয়

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে প্রস্তুতির নির্দেশনা জারি

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে প্রস্তুতির নির্দেশনা জারি

প্রাথমিকে পেনশন নিষ্পত্তিতে দেরি হলে জবাবদিহি

প্রাথমিকে পেনশন নিষ্পত্তিতে দেরি হলে জবাবদিহি

অবশেষে দারুল ইহসানের সনদধারীদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে মন্ত্রণালয়

অবশেষে দারুল ইহসানের সনদধারীদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে মন্ত্রণালয়

যে ২০ কারণে বায়ুদূষণে প্রতিদিনই শীর্ষে ঢাকা

যে ২০ কারণে বায়ুদূষণে প্রতিদিনই শীর্ষে ঢাকা

পদোন্নতি পাচ্ছেন ৭২৮৭ জন শিক্ষক

পদোন্নতি পাচ্ছেন ৭২৮৭ জন শিক্ষক

মশা নিয়ে মুখোমুখি বেবিচক-ডিএনসিসি

মশা নিয়ে মুখোমুখি বেবিচক-ডিএনসিসি

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার প্রস্তুতির নির্দেশনা দু-একদিনের মধ্যেই

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার প্রস্তুতির নির্দেশনা দু-একদিনের মধ্যেই

প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোকে ১০ ফেব্রুয়ারির মধ্যে তথ্য পাঠানোর নির্দেশ

প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোকে ১০ ফেব্রুয়ারির মধ্যে তথ্য পাঠানোর নির্দেশ

সচিবের সঙ্গে প্রাথমিক শিক্ষকদের বৈঠকে যা হলো

সচিবের সঙ্গে প্রাথমিক শিক্ষকদের বৈঠকে যা হলো

‘উচ্চশিক্ষার বিস্তার হয়েছে, এখন প্রয়োজন গুণগত মান নিশ্চিত করা’

‘উচ্চশিক্ষার বিস্তার হয়েছে, এখন প্রয়োজন গুণগত মান নিশ্চিত করা’

৪৩তম বিসিএসের আবেদনের সময় বাড়ানোর অনুরোধ ইউজিসির

৪৩তম বিসিএসের আবেদনের সময় বাড়ানোর অনুরোধ ইউজিসির

সর্বশেষ

কোম্পানীগঞ্জে রবিবার অর্ধদিবস হরতাল

ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে কটূক্তিকোম্পানীগঞ্জে রবিবার অর্ধদিবস হরতাল

আ. লীগ প্রার্থীর বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র প্রার্থীকে হত্যার হুমকি দেওয়ার অভিযোগ

আ. লীগ প্রার্থীর বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র প্রার্থীকে হত্যার হুমকি দেওয়ার অভিযোগ

করোনার ব্রিটিশ ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণে মৃত্যু ঝুঁকি বেশি হওয়ার আশঙ্কা

করোনার ব্রিটিশ ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণে মৃত্যু ঝুঁকি বেশি হওয়ার আশঙ্কা

সংক্রমণ কমছে, করোনা হটানোর এটাই সুযোগ!

সংক্রমণ কমছে, করোনা হটানোর এটাই সুযোগ!

৬ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর ফেরি চলাচল স্বাভাবিক 

৬ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর ফেরি চলাচল স্বাভাবিক 

১২৬ মাছে ভাগ্য খুলেছে রফিকুলের

১২৬ মাছে ভাগ্য খুলেছে রফিকুলের

বিশ্বে ২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত ৬ লাখ ৮৫ হাজার

বিশ্বে ২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত ৬ লাখ ৮৫ হাজার

সুন্দরবনে বাঘের আক্রমণে নিহত দু'জনের  লাশ ভারতে উদ্ধার

সুন্দরবনে বাঘের আক্রমণে নিহত দু'জনের লাশ ভারতে উদ্ধার

উপমহাদেশের স্বার্থে পাকিস্তানের স্বীকৃতি জরুরি

উপমহাদেশের স্বার্থে পাকিস্তানের স্বীকৃতি জরুরি

নতুন ঘর পেয়ে খুশি সুকজান বেগম

নতুন ঘর পেয়ে খুশি সুকজান বেগম

‘জীবনেও ভাবি নাই পাক্কা ঘরে ঘুমামু’

‘জীবনেও ভাবি নাই পাক্কা ঘরে ঘুমামু’

ঘর 'আপন' হওয়ার আগে আগলে রাখছেন তারা

ঘর 'আপন' হওয়ার আগে আগলে রাখছেন তারা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

প্রাথমিকে পেনশন নিষ্পত্তিতে দেরি হলে জবাবদিহি

প্রাথমিকে পেনশন নিষ্পত্তিতে দেরি হলে জবাবদিহি

অবশেষে দারুল ইহসানের সনদধারীদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে মন্ত্রণালয়

অবশেষে দারুল ইহসানের সনদধারীদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে মন্ত্রণালয়

পদোন্নতি পাচ্ছেন ৭২৮৭ জন শিক্ষক

পদোন্নতি পাচ্ছেন ৭২৮৭ জন শিক্ষক

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার প্রস্তুতির নির্দেশনা দু-একদিনের মধ্যেই

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার প্রস্তুতির নির্দেশনা দু-একদিনের মধ্যেই

মশা নিয়ে মুখোমুখি বেবিচক-ডিএনসিসি

মশা নিয়ে মুখোমুখি বেবিচক-ডিএনসিসি

প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোকে ১০ ফেব্রুয়ারির মধ্যে তথ্য পাঠানোর নির্দেশ

প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোকে ১০ ফেব্রুয়ারির মধ্যে তথ্য পাঠানোর নির্দেশ

সচিবের সঙ্গে প্রাথমিক শিক্ষকদের বৈঠকে যা হলো

সচিবের সঙ্গে প্রাথমিক শিক্ষকদের বৈঠকে যা হলো

‘উচ্চশিক্ষার বিস্তার হয়েছে, এখন প্রয়োজন গুণগত মান নিশ্চিত করা’

‘উচ্চশিক্ষার বিস্তার হয়েছে, এখন প্রয়োজন গুণগত মান নিশ্চিত করা’

যেসব প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তালিকা চেয়েছে সরকার

যেসব প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তালিকা চেয়েছে সরকার

প্রাথমিকের সব শিক্ষককে ১৩তম গ্রেড দিতে অর্থ বিভাগের সম্মতি

প্রাথমিকের সব শিক্ষককে ১৩তম গ্রেড দিতে অর্থ বিভাগের সম্মতি


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.