X
সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১, ২৮ চৈত্র ১৪২৭

সেকশনস

কক্সবাজার সৈকতে বঙ্গবন্ধু

আপডেট : ০৭ মার্চ ২০২১, ১১:০০

রাজনৈতিক জীবনের পুরোটা সময় মানুষের দুঃখ-দুর্দশার খবর নিতে সমগ্র বাংলাদেশ ঘুরে বেড়িয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। এরই ধারাবাহিকতায় কক্সবাজারেও এঁকেছেন নিজের পদচিহ্ন।

১৯৬৯ সালে কক্সবাজার সফরের এক পর্যায়ে সমুদ্র সৈকত ঘুরে দেখেন তিনি। সে সময়ে কক্সবাজার শহরের বাহারছড়া ঝাউতলাস্থ পুরনো সায়মন হোটেলে বঙ্গবন্ধুর সম্মানে ক্যান্ডেল লাইট ডিনারেরও আয়োজন করা হয়েছিল। এমনই কিছু দুর্লভ ছবির কর্নার রয়েছে তারকামানের হোটেল সায়মন বিচ রিসোর্টে। এছাড়া জীবদ্দশায় অন্তত ১২ বার কক্সবাজার সফর করেছেন তিনি।

কক্সবাজার সায়মন বিচ রিসোর্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মাহবুবুর রহমান বলেন, ১৯৬৯ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান কক্সবাজার সফরের সময় হোটেল সায়মনে ডিনার করেন এবং সৈকতের সৌন্দর্য উপভোগ করেন। ওই সময়ে আমার বাবা সাবেক গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী প্রকৌশলী মোশারফ হোসেন বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে ছিলেন। বঙ্গবন্ধুর পর তার দুই মেয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং শেখ রেহেনাও সায়মন হোটেলে অতিথি হয়ে এসেছিলেন।

কক্সবাজারের সিনিয়র সাংবাদিক তোফায়েল আহমদ জানান, ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সর্বপ্রথম ১৯৫৮ সালে কক্সবাজার সফর করেন। সর্বশেষ ১৯৭৫ সালের ১০ জানুয়ারি কক্সবাজার সফর করেছিলেন তিনি। এভাবে তিনি বিভিন্ন কারণে ১৩ থেকে ১৪ বার কক্সবাজার এসেছিলেন।’

কক্সবাজার সৈকতে বঙ্গবন্ধু কক্সবাজারকে ঘিরে বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের অবদানের কথা উল্লেখ করে সাংবাদিক তোফায়েল আহমদ আরও জানান, ওই সময়ে তিনি কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের বালুকাময় ১০০ একর জমিতে ঝাউগাছ বনায়নের নির্দেশনা দেন বনবিভাগকে। এ কারণে প্রাকৃতিক ঘূর্ণিঝড় ও সামুদ্রিক জলোচ্ছ্বাস থেকে উপকূলীয় অঞ্চল রক্ষা এবং সৈকতের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত দেশি-বিদেশি পর্যটকদের আকৃষ্ট করেছে।

কক্সবাজারের তরুন লেখক কালাম আজাদ তার একটি গ্রন্থে লিখেছেন, ‘স্বাধীনতা পূর্ব ও পরবর্তী সময়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান ১২ বার কক্সবাজার সফর করেছেন। কক্সবাজারের রাজনৈতিক ও আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে বঙ্গবন্ধুর ভূমিকা অনবদ্য। বঙ্গবন্ধুর জন্মের শতবর্ষ পেরিয়ে যাচ্ছে, অথচ কক্সবাজারে বঙ্গবন্ধুর অবদান ও রাজনৈতিক ভূমিকা নিয়ে উল্লেখযোগ্য কোনও গবেষণা হয়নি, এ বিষয়ে রচিত হয়নি একটিও স্বতন্ত্র গ্রন্থ। বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি বুকে নিয়ে কক্সবাজারে এখনও অনেক প্রবীণ ব্যক্তি জীবিত আছেন। আরও বিলম্ব করলে হয়তো তারা সবাই গত হয়ে যাবেন।’ এ অবস্থায় কক্সবাজারে বঙ্গবন্ধুর আগমন ও অবদানের ইতিহাস সংরক্ষণের এখনই সর্বোচ্চ সময় বলে মন্তব্য করেন তিনি।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

ধর্ষণের পর আটকে রেখে মুক্তিপণ দাবির অভিযোগ, গ্রেফতার ৪

ধর্ষণের পর আটকে রেখে মুক্তিপণ দাবির অভিযোগ, গ্রেফতার ৪

হেলে পড়া ভবনটির অনুমোদন নেই, ভেঙে ফেলতে চসিককে চিঠি

হেলে পড়া ভবনটির অনুমোদন নেই, ভেঙে ফেলতে চসিককে চিঠি

মাদ্রাসার কম্বলের নিচে মিললো শিশুর মরদেহ

মাদ্রাসার কম্বলের নিচে মিললো শিশুর মরদেহ

‘ব্রাহ্মণবাড়িয়াকে এক টুকরো আফগানিস্তান বানাতে চায় হেফাজত’

‘ব্রাহ্মণবাড়িয়াকে এক টুকরো আফগানিস্তান বানাতে চায় হেফাজত’

জেলা পরিষদের ক্ষতি পাঁচ কোটি টাকা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজতের তাণ্ডবজেলা পরিষদের ক্ষতি পাঁচ কোটি টাকা

মাদ্রাসায় করোনা আসবে না: বাবুনগরী

মাদ্রাসায় করোনা আসবে না: বাবুনগরী

বাবুনগরী বললেন ‘এটা মামুনুলের ব্যক্তিগত ব্যাপার’

বাবুনগরী বললেন ‘এটা মামুনুলের ব্যক্তিগত ব্যাপার’

হাটহাজারী মাদ্রাসায় বৈঠকে বসেছেন হেফাজত নেতারা

হাটহাজারী মাদ্রাসায় বৈঠকে বসেছেন হেফাজত নেতারা

পটিয়া থানা ভাঙচুরের অভিযোগে ৫ হেফাজত কর্মী গ্রেফতার

পটিয়া থানা ভাঙচুরের অভিযোগে ৫ হেফাজত কর্মী গ্রেফতার

চট্টগ্রামে হেলে পড়েছে ৫ তলা ভবন

চট্টগ্রামে হেলে পড়েছে ৫ তলা ভবন

হেফাজতের তাণ্ডবের সময় ছিনিয়ে নেওয়া গুলি উদ্ধার, গ্রেফতার চার

হেফাজতের তাণ্ডবের সময় ছিনিয়ে নেওয়া গুলি উদ্ধার, গ্রেফতার চার

চট্টগ্রামে আরও ৫ জনের মৃত্যু, ৫২৩ জন করোনায় আক্রান্ত

চট্টগ্রামে আরও ৫ জনের মৃত্যু, ৫২৩ জন করোনায় আক্রান্ত

সর্বশেষ

ধর্ষণের পর আটকে রেখে মুক্তিপণ দাবির অভিযোগ, গ্রেফতার ৪

ধর্ষণের পর আটকে রেখে মুক্তিপণ দাবির অভিযোগ, গ্রেফতার ৪

নারায়ণগঞ্জে গ্যাসের আগুনে দুইজন দগ্ধ

নারায়ণগঞ্জে গ্যাসের আগুনে দুইজন দগ্ধ

৩০ কোটি টাকার টেন্ডার নিয়ে জবি ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের হাতাহাতি

৩০ কোটি টাকার টেন্ডার নিয়ে জবি ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের হাতাহাতি

দারিদ্র্য ছাপিয়ে দিপার তাক লাগানো সাফল্য

দারিদ্র্য ছাপিয়ে দিপার তাক লাগানো সাফল্য

দারুণ জয়ে শুরু কলকাতার, সাদামাটা সাকিব

দারুণ জয়ে শুরু কলকাতার, সাদামাটা সাকিব

পাটুরিয়া ঘাটে উপেক্ষিত স্বাস্থ্য বিধি!

পাটুরিয়া ঘাটে উপেক্ষিত স্বাস্থ্য বিধি!

সিনেমার জন্য তাদের আসল নামটাই মুছে গেলো!

সিনেমার জন্য তাদের আসল নামটাই মুছে গেলো!

হেলে পড়া ভবনটির অনুমোদন নেই, ভেঙে ফেলতে চসিককে চিঠি

হেলে পড়া ভবনটির অনুমোদন নেই, ভেঙে ফেলতে চসিককে চিঠি

জমি নিয়ে বিরোধ, প্রতিবেশীকে কুপিয়ে হত্যা

জমি নিয়ে বিরোধ, প্রতিবেশীকে কুপিয়ে হত্যা

যেভাবে পশ্চিমবঙ্গে এবারের নির্বাচন বাংলাদেশময়

যেভাবে পশ্চিমবঙ্গে এবারের নির্বাচন বাংলাদেশময়

ছাত্র ইউনিয়নের বহিষ্কৃত অংশের ‘জাতীয় জরুরি সম্মেলন’ আহ্বান

ছাত্র ইউনিয়নের বহিষ্কৃত অংশের ‘জাতীয় জরুরি সম্মেলন’ আহ্বান

মামুনুল হকের পক্ষে স্ট্যাটাস, স্বেচ্ছাসেবক লীগের দুই নেতাকে শোকজ

মামুনুল হকের পক্ষে স্ট্যাটাস, স্বেচ্ছাসেবক লীগের দুই নেতাকে শোকজ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ধর্ষণের পর আটকে রেখে মুক্তিপণ দাবির অভিযোগ, গ্রেফতার ৪

ধর্ষণের পর আটকে রেখে মুক্তিপণ দাবির অভিযোগ, গ্রেফতার ৪

হেলে পড়া ভবনটির অনুমোদন নেই, ভেঙে ফেলতে চসিককে চিঠি

হেলে পড়া ভবনটির অনুমোদন নেই, ভেঙে ফেলতে চসিককে চিঠি

মাদ্রাসার কম্বলের নিচে মিললো শিশুর মরদেহ

মাদ্রাসার কম্বলের নিচে মিললো শিশুর মরদেহ

‘ব্রাহ্মণবাড়িয়াকে এক টুকরো আফগানিস্তান বানাতে চায় হেফাজত’

‘ব্রাহ্মণবাড়িয়াকে এক টুকরো আফগানিস্তান বানাতে চায় হেফাজত’

জেলা পরিষদের ক্ষতি পাঁচ কোটি টাকা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজতের তাণ্ডবজেলা পরিষদের ক্ষতি পাঁচ কোটি টাকা

মাদ্রাসায় করোনা আসবে না: বাবুনগরী

মাদ্রাসায় করোনা আসবে না: বাবুনগরী

বাবুনগরী বললেন ‘এটা মামুনুলের ব্যক্তিগত ব্যাপার’

বাবুনগরী বললেন ‘এটা মামুনুলের ব্যক্তিগত ব্যাপার’

হাটহাজারী মাদ্রাসায় বৈঠকে বসেছেন হেফাজত নেতারা

হাটহাজারী মাদ্রাসায় বৈঠকে বসেছেন হেফাজত নেতারা

পটিয়া থানা ভাঙচুরের অভিযোগে ৫ হেফাজত কর্মী গ্রেফতার

পটিয়া থানা ভাঙচুরের অভিযোগে ৫ হেফাজত কর্মী গ্রেফতার

চট্টগ্রামে হেলে পড়েছে ৫ তলা ভবন

চট্টগ্রামে হেলে পড়েছে ৫ তলা ভবন

Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.
© 2021 Bangla Tribune