সেকশনস

মহারাজা স্কুল মাইন ট্র্যাজেডি: যেভাবে নিহত হয়েছিলেন ৫ শতাধিক মুক্তিযোদ্ধা

আপডেট : ০৫ জানুয়ারি ২০২১, ২২:২৩

৬ জানুয়ারি, দিনাজপুর জেলার ইতিহাসে এক বেদনাদায়ক দিন। ১৯৭২ সালের এই দিনে দিনাজপুরের মহারাজা স্কুলে মুক্তিযোদ্ধা ট্রানজিট ক্যাম্পে এক আকস্মিক মাইন বিস্ফোরণে একসঙ্গে শহীদ হন মুক্তিযুদ্ধের বিজয় ছিনিয়ে আনা প্রায় ৫ শতাধিক মুক্তিযোদ্ধা, আহত হন অনেকেই।

মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তীকালে এতবড় ট্র্যাজেডি দেশে আর দ্বিতীয়টি নেই। তাই এই ইতিহাসটি পাঠ্যপুস্তকে অন্তর্ভুক্তের পাশাপাশি দিবসটি রাষ্ট্রীয়ভাবে পালনের দাবি দিনাজপুরবাসীর। একইসঙ্গে এখানে নিহতদের স্মরণে স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণের দাবি মুক্তিযোদ্ধাদের।

১৯৭১ সালে ১৬ ডিসেম্বর পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর আত্মসমর্পণের মধ্য দিয়ে দেশ স্বাধীন হয়। ১৯৭২ সালের জানুয়ারি মাস। দীর্ঘ ৯ মাস জীবনের বাজি রেখে পাক সেনাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে মুক্তিযোদ্ধারা লাল সবুজের একটি পতাকা ও একটি স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্র জাতিকে উপহার দিয়ে বাড়িতে ফিরে গিয়ে পরিবার পরিজনের সঙ্গে আনন্দ উৎসব করার কথা। কিন্তু দেশ স্বাধীন হলেও পাক সেনাদের রেখে যাওয়া মাইনের সরানোর কাজ শুরু করেন মুক্তিযোদ্ধারা।

এজন্য দিনাজপুর শহরের মহারাজা স্কুলে স্থাপন করা হয়েছিল মুক্তিযোদ্ধা ট্রানজিট ক্যাম্প। যেখানে সমবেত হন দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও, পঞ্চগড়সহ আশপাশের জেলাগুলোর ৮ শতাধিক মুক্তিযোদ্ধা। সকালে তারা বেরিয়ে পড়তেন পাক সেনাদের ফেলে যাওয়া, লুকিয়ে রাখা ও পুঁতে রাখা মাইন ও অস্ত্রশস্ত্র এবং গোলাবারুদের সন্ধানে। সন্ধ্যার দিকে উদ্ধারকৃত মাইন ও অস্ত্রাদি জমা করা হতো মহারাজা স্কুলের দক্ষিণাংশে খনন করা বাঙ্কারে।

১৯৭২ সালের ৬ জানুয়ারি সন্ধ্যায় এ রুটিন ওয়ার্কের এক পর্যায়ে ঘটে যায় ভয়াবহ দুর্ঘটনা। উদ্ধারকৃত অস্ত্র বাঙ্কারে নামানোর সময় অসতর্ক মুহূর্তে একজন মুক্তিযোদ্ধার হাত থেকে একটি মাইন পড়ে যায়। এতে করে মাইনটি বিস্ফোরিত হয়। সঙ্গে সঙ্গে বাঙ্কারের পুরো অস্ত্রভাণ্ডার বিস্ফোরিত হয়। ভয়াবহ ও বিকট বিস্ফোরণে ভয়াবহ ধ্বংসযজ্ঞ সৃষ্টি হয় মহারাজা স্কুল প্রাঙ্গণসহ এর আশপাশের এলাকায়। এতে পাঁচ শতাধিক মুক্তিযোদ্ধা শহীদ এবং বহু সংখ্যক মুক্তিযোদ্ধা আহত হন।

মুক্তিযোদ্ধারা জানান, সেদিন সকালের রোল-কলে উপস্থিত ছিলেন ৭৮০ জন মুক্তিযোদ্ধা। দুর্ঘটনার পূর্বে ৫০ থেকে ৬০ জন মুক্তিযোদ্ধা ছুটি নিয়ে ক্যাম্প ত্যাগ করেছিলেন। এই ভয়াবহ দুর্ঘটনায় সাড়ে ৪শ মুক্তিযোদ্ধা তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলেই নিহত হন। শতাধিক আহত মুক্তিযোদ্ধাকে ভর্তি করা হয়েছিল দিনাজপুর জেনারেল হাসপাতাল ও সেন্ট ভিসেন্ট মিশন হাসপাতালে। এদের মধ্যে থেকে পরে ২৯ জন মারা যায়।
৬ জানুয়ারি স্মৃতি পরিষদের প্রতিষ্ঠাকালীন আহ্বায়ক আজহারুল আজাদ জুয়েল বলেন, এই ঘটনা নতুন প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দিতে বিষয়টি পাঠ্যপুস্তকে অন্তর্ভুক্তের দাবি জানিয়ে আসছি। কিন্তু এখনও সেই দাবির বাস্তবায়ন হয়নি।

সংগঠনটির আহ্বায়ক মুক্তিযোদ্ধা সফিকুল হক ছুটু বলেন, এতবড় দুর্ঘটনা ঘটেনি স্বাধীন বাংলাদেশে মুক্তিযোদ্ধাদের ক্ষেত্রে। কিন্তু এই ইতিহাস এখনও উপেক্ষিত। আমরা চাই এই ইতিহাস সবাই জানুক। একইসঙ্গে এখানে একটি মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি কমপ্লেক্স গঠন করা উচিত যেখানে এই ঘটনাটি ছাড়াও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক স্মৃতিগুলো সংরক্ষিত থাকবে।

দিবসটি পালন উপলক্ষে ৬ জানুয়ারি স্মৃতি পরিষদ প্রতি বছরের মতো এবারও বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে সকাল ৯টায় চেহেলগাজী মাজার ও মহারাজা স্কুল প্রাঙ্গণে শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের নামফলকে শ্রদ্ধা নিবেদন, সকাল ১১টায় প্রেসক্লাবে আলোচনা সভা ও বাদ আসর মহারাজা স্কুল জামে মসজিদে শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় মিলাদ ও দোয়া মাহফিল।

/এমআর/

সম্পর্কিত

সৈয়দপুরের সব কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ

সৈয়দপুরের সব কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ

করোনার প্রভাব সুদূরপ্রসারী, পুরোপুরি সারে না ক্ষতিগ্রস্ত অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ 

করোনার প্রভাব সুদূরপ্রসারী, পুরোপুরি সারে না ক্ষতিগ্রস্ত অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ 

আটক বাঙালিদের ভাগ্যে কী ঘটেছে জানতে চান বঙ্গবন্ধু

আটক বাঙালিদের ভাগ্যে কী ঘটেছে জানতে চান বঙ্গবন্ধু

কারাগারে লেখক মুশতাকের মৃত্যু, মধ্যরাতে বিক্ষোভ

কারাগারে লেখক মুশতাকের মৃত্যু, মধ্যরাতে বিক্ষোভ

আপত্তির মুখে দেশে বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা খোলার অনুমোদন

আপত্তির মুখে দেশে বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা খোলার অনুমোদন

সংকট সামলাতে এলএনজি সরবরাহ বাড়ছে

সংকট সামলাতে এলএনজি সরবরাহ বাড়ছে

নীলগাইটিকে ধরেই জবাইয়ের চেষ্টা, গলায় পড়েছে ১৭টি সেলাই

নীলগাইটিকে ধরেই জবাইয়ের চেষ্টা, গলায় পড়েছে ১৭টি সেলাই

শাহবাগে আটককৃত শিক্ষার্থীদের ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ

শাহবাগে আটককৃত শিক্ষার্থীদের ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ

লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট ফর ডিজিটাল ব্যাংকিং পুরস্কার পাচ্ছেন ড. আতিউর

লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট ফর ডিজিটাল ব্যাংকিং পুরস্কার পাচ্ছেন ড. আতিউর

‘মুজিববর্ষে সোনার বাংলা সবুজ করার লক্ষ্যে বৃক্ষরোপণ অভিযান’

‘মুজিববর্ষে সোনার বাংলা সবুজ করার লক্ষ্যে বৃক্ষরোপণ অভিযান’

রফতানি শিল্পে পুনঃঅর্থায়ন ঋণ দেবে ১৪ ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান

রফতানি শিল্পে পুনঃঅর্থায়ন ঋণ দেবে ১৪ ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান

নিবন্ধন সাড়ে ৪০ লাখ, টিকা নিয়েছেন সাড়ে ২৮ লাখ মানুষ

নিবন্ধন সাড়ে ৪০ লাখ, টিকা নিয়েছেন সাড়ে ২৮ লাখ মানুষ

সর্বশেষ

চীনের উইঘুর নিপীড়ন গণহত্যা: ডাচ পার্লামেন্ট

চীনের উইঘুর নিপীড়ন গণহত্যা: ডাচ পার্লামেন্ট

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে ৭ জন নিহত

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে ৭ জন নিহত

সৈয়দপুরের সব কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ

সৈয়দপুরের সব কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ

ভারত বায়োটেকের ২ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন কিনবে ব্রাজিল

ভারত বায়োটেকের ২ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন কিনবে ব্রাজিল

যুক্তরাষ্ট্রে যথাযথ কাগজপত্রবিহীন বাংলাদেশিদের বৈধ করার আহ্বান পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

যুক্তরাষ্ট্রে যথাযথ কাগজপত্রবিহীন বাংলাদেশিদের বৈধ করার আহ্বান পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

সিরিয়ায় ইরানপন্থী মিলিশিয়াদের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের হামলা

সিরিয়ায় ইরানপন্থী মিলিশিয়াদের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের হামলা

বাসের ধাক্কায় প্রাণ গেলো চার জনের

বাসের ধাক্কায় প্রাণ গেলো চার জনের

করোনার প্রভাব সুদূরপ্রসারী, পুরোপুরি সারে না ক্ষতিগ্রস্ত অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ 

করোনার প্রভাব সুদূরপ্রসারী, পুরোপুরি সারে না ক্ষতিগ্রস্ত অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ 

খাশোগি হত্যার প্রতিবেদন প্রকাশের আগে বাইডেন-সৌদি বাদশাহ ফোনালাপ

খাশোগি হত্যার প্রতিবেদন প্রকাশের আগে বাইডেন-সৌদি বাদশাহ ফোনালাপ

চিনিকলের ডিজেল বিক্রি করা হচ্ছিলো দোকানে, আটক ৩

চিনিকলের ডিজেল বিক্রি করা হচ্ছিলো দোকানে, আটক ৩

ফাইজারের টিকা ৯৪ শতাংশ কার্যকর: আন্তর্জাতিক জরিপ

ফাইজারের টিকা ৯৪ শতাংশ কার্যকর: আন্তর্জাতিক জরিপ

চানাচুর বিক্রির ছুরি দিয়ে বোনজামাইকে খুন!

চানাচুর বিক্রির ছুরি দিয়ে বোনজামাইকে খুন!

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সৈয়দপুরের সব কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ

সৈয়দপুরের সব কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ

নীলগাইটিকে ধরেই জবাইয়ের চেষ্টা, গলায় পড়েছে ১৭টি সেলাই

নীলগাইটিকে ধরেই জবাইয়ের চেষ্টা, গলায় পড়েছে ১৭টি সেলাই

পুকুরে ডুবে যমজ দুই ভাইয়ের মৃত্যু

পুকুরে ডুবে যমজ দুই ভাইয়ের মৃত্যু

দিনাজপুরের হত্যা মামলার আসামি ঢাকায় গ্রেফতার

দিনাজপুরের হত্যা মামলার আসামি ঢাকায় গ্রেফতার

ঠাকুরগাঁওয়ে সাংবাদিকের পরিবারের সদস্যদের ওপর হামলা, আহত ৪

ঠাকুরগাঁওয়ে সাংবাদিকের পরিবারের সদস্যদের ওপর হামলা, আহত ৪

ধানক্ষেতে ‘রহস্যজনক’ পায়ের ছাপ: অবশেষে সেই প্রাণী উদ্ধার

ধানক্ষেতে ‘রহস্যজনক’ পায়ের ছাপ: অবশেষে সেই প্রাণী উদ্ধার

নির্যাতনে অচেতন বাংলাদেশি কিশোরকে ‘মৃত’ ভেবে ফেলে গেলো বিএসএফ

নির্যাতনে অচেতন বাংলাদেশি কিশোরকে ‘মৃত’ ভেবে ফেলে গেলো বিএসএফ

বরের বয়স ৯২, কনের ৮২

বরের বয়স ৯২, কনের ৮২


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.