সেকশনস

উন্নয়ন প্রকল্পে শত কোটি টাকার দুর্নীতি, পরিচালক বরখাস্ত

আপডেট : ১৫ নভেম্বর ২০১৯, ০৫:১০

ছবিটি সংগৃহীত

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের পর এবার বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) দুর্নীতি প্রতিরোধে তৎপর হয়েছে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের অনুসন্ধানে জানা যায়, কক্সবাজার বিমানবন্দর উন্নয়ন প্রকল্পের (প্রথম পর্যায়) ভূমি অধিগ্রহণে দুর্নীতি ও অপচয়ের কারণে সরকারের ক্ষতি হয়েছে কমপক্ষে ১০০ কোটি টাকা। বিমানবন্দরটির সীমানা প্রাচীর নির্মাণ, ভূমি অধিগ্রহণসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রেও মিলেছে দুর্নীতির প্রমাণ। মন্ত্রণালয়ের অনুসন্ধানে প্রমাণ হয় যে, এসব দুর্নীতের সঙ্গে জড়িত বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আমিনুল হাসিব, তিনি এই প্রকল্পের পরিচালক হিসেবে দায়িত্বে আছেন। মন্ত্রণালয়ের তদন্ত প্রতিবেদন ও সুপারিশের ভিত্তিতে এই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা দায়ের ও দুর্নীতির অভিযোগে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে বেবিচক।

জানা গেছে, এই বছর ৩ মার্চ সচিবালয়ে দুদক কমিশনার ড. মো. মোজাম্মেল হক খান বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) ও বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স সংক্রান্ত অনুসন্ধান ও পর্যবেক্ষণ প্রতিবেদন হস্তান্তর করেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলীর কাছে। সেই প্রতিবেদনে উল্লেখ কার হয়- বেবিচকে ১১ ও বিমানে ৮ ধরনের দুর্নীতি হচ্ছে। দুর্নীতি প্রতিরোধে ব্যবস্থা নিতে মন্ত্রণালয়কে ১১টি সুপারিশ পাঠিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

প্রতিবেদনে বলা হয়- মেরামত, রক্ষণাবেক্ষণ, ক্রয় খাত, সম্পত্তি ব্যবস্থাপনা, নির্মাণ, উন্নয়ন কাজ, পরামর্শক নিয়োগ, কর্মী নিয়োগ, পদোন্নতি ও বদলি, বিমানবন্দরের স্পেস, স্টল ও বিলবোর্ড ভাড়াসহ ১১ ধরনের দুর্নীতি হচ্ছে সিভিল এভিয়েশনে।

বিমান মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, দুদকের প্রতিবেদন পাওয়ার পর দুর্নীতি প্রতিরোধে ব্যবস্থা নিতে তৎপর হয় মন্ত্রণালয়। বিমান সচিব মো. মহিবুল হক একাধিক কমিটি করেন বিমান ও বেবিচকের দুর্নীতি চিহ্নিত করতে। প্রথমে বিমানে বিভিন্ন পর্যায়ে দুর্নীতির প্রমাণ পায় মন্ত্রণালয়। এরপর বিমানের একাধিক কর্মকর্তাকে সাময়িক বরখাস্ত, চাকরিচ্যুত ও বদলি করা হয়। একই সঙ্গে বেবিচকেও চলে মন্ত্রণালয়ের অনুসন্ধান। বেবিচকের শীর্ষ পর্যায়ের কয়েকজন কর্মকর্তাকেও করা হয় বদলি।

বেবিচক সূত্রে জানা গেছে, মন্ত্রণালয়ের অনুসন্ধানে কক্সবাজার বিমানবন্দর উন্নয়ন প্রকল্পকে ঘিরে দুর্নীতি ও কর্তব্য পালনে ব্যর্থতার অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে বেবিচক-এর নির্বাহী প্রকৌশলী ও কক্সবাজার বিমানবন্দর উন্নয়ন প্রকল্পের (প্রথম পর্যায়) পরিচালক মো. আমিনুল হাসিবের বিরুদ্ধে। দুর্নীতির প্রমাণ পাওয়ায় ১৪ নভেম্বর তার বিরুদ্ধে বেবিচকের চাকরি প্রবিধানমালা-১৯৮৮ এর ৩৯(ক), ৩৯(ঘ), ৩৯(ঙ) এবং ৩৯(চ) ধারায় দায়িত্ব পালনে অবহেলা, অদক্ষতা, দুর্নীতি পরায়ণতা এবং আত্মসাৎ এর অভিযোগে বিভাগীয় মামলা দায়ের করা হয়েছে। একই সঙ্গে বেবিচকের চাকরি প্রবিধানমালা-১৯৮৮ এর ৪৫(১) ধারার বিধানে তাকে চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্তও করা হয়।

মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, ২০১২ সালে ৪ অক্টোবর কক্সবাজার বিমানবন্দর উন্নয়ন প্রকল্পের (প্রথম পর্যায়) প্রকল্প পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পান বেবিচকের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আমিনুল হাসিব। মন্ত্রণালয়ের একজন অতিরিক্ত সচিবের নেতৃত্বে গঠিত তদন্ত কমিটির অনুসন্ধানে ধরা পড়ে- কক্সবাজার বিমানবন্দর উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য ভূমি অধিগ্রহণের জন্য জেলায় (০৪/২০১৫-২০১৬ নম্বর) ভূমি অধিগ্রহণ কেসের ভূমি অধিগ্রহণ বাবদ চাহিদা মোতাবেক অর্থ যথাসময়ে জমা না দেওয়ায় সরকারের কমপক্ষে ১০০ কোটি টাকার ক্ষতি ও দুর্নীতি হয়েছে।  প্রকল্পের ভূমি অধিগ্রহণের জন্য কক্সবাজার জেলায় (০৪/২০১৫-২০১৬ নং) ভূমি অধিগ্রহণ কেসে ৬৯ কোটি ২৮ লাখ ৭২ হাজার টাকা গত ২৩ মের মধ্যে জমা দিতে চিঠি পাঠায় কক্সবাজার জেলা প্রশাসক। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে এই অর্থ জেলা প্রশাসকের তহবিলে জমা দেওয়া প্রকল্প পরিচালক হিসেবে মো. আমিনুল হাসিবের দায়িত্ব ছিল। কিন্তু দুর্নীতি, অদক্ষতা ও ব্যর্থতার কারণে প্রকল্প পরিচালক নির্ধারিত সময়ে অর্থ জমা দেননি। ফলে আইন অনুযায়ী ভূমি অধিগ্রহণ কেসটি বাতিল হয়ে যায়। প্রকল্পটি পুরাতন ভূমি অধিগ্রহণ আইনের আওতায় হওয়ায় ক্ষতিপূরণ বাবদ জমির দেড় গুণ অর্থ পরিশোধের জন্য নির্ধারিত ছিল। কিন্তু অধিগ্রহণ কেসটি বাতিল হওয়ায় এখন সেটি ২০১৭ সালের আইনের আওতায় সম্পন্ন করতে হবে। এ কারণে জমির মূল্য তিন গুণ এবং এ সময়ে উক্ত এলাকায় জমির বর্ধিত মূল্যের হারে পরিশোধ করতে হবে। এজন্য সরকারের কমপক্ষে ১০০ কোটি টাকা অতিরিক্ত ব্যয় করতে হবে।

তদন্তে প্রমাণিত হয়, মো. আমিনুল হাসিব স্থানীয় ভূমি মালিক ও কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের কিছু কর্মচারীর সঙ্গে মিলে প্রকল্পের ব্যয় বৃদ্ধি করে অতিরিক্ত অর্থ দুর্নীতির মাধ্যমে নিজে আত্নসাৎ করার ষড়যন্ত্র করেছেন। প্রকল্প পরিচালকের ব্যক্তিগত ব্যর্থতায় ভূমি অধিগ্রহণ কেসটি বাতিল হলেও দীর্ঘ চার মাসেও ভূমি অধিগ্রহণের জন্য জেলা প্রশাসক বরাবর নতুন করে আবেদন করা হয়নি।

তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়, কক্সবাজার বিমানবন্দর উন্নয়ন প্রকল্পের (প্রথম পর্যায়) একটি কমপনেন্ট হিসেবে বিমানবন্দরের ৩৭ কোটি টাকা সীমানা প্রাচীর স্পেসিফিকেশন অনুযায়ী নির্মাণ করা হয়নি। প্রকল্প পরিচালকের ব্যক্তিগত ব্যর্থতা, অদক্ষতা ও দুর্নীতির কারণে এই প্রকল্পের কাজে মারাত্মক ত্রুটি হয়েছে। কক্সবাজার বিমানবন্দরের রানওয়ে সম্প্রসারণ প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক হিসেবেও দায়িত্বে ছিলেন মো. আমিনুল হাসিব। গত বছর ৪ নভেম্বর প্রকল্পটির ডিপিপি সরকার কর্তৃক অনুমোদিত হয়। প্রধানমন্ত্রীর অগ্রধিকার থাকা সত্ত্বেও ডিডিপি অনুমোদিত হওয়ার এক বছর পরও টেন্ডার জারি করেননি প্রকল্প পরিচালক। তার ব্যক্তিগত অদক্ষতা ও ব্যর্থতায় সরকারি কার্যক্রম ধীরগতি হয়েছে এবং মন্ত্রণালয়ের ভাবমূর্তি মারাত্নকভাবে বিঘ্নিত হয়েছে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মহিবুল হক বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী নির্দেশে দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান চলছে। কক্সবাজার বিমানবন্দর উন্নয়ন প্রকল্পে মন্ত্রণালয়ের একজন অতিরিক্ত সচিব তদন্ত করে একটি প্রতিবেদন দিয়েছেন। তদন্তে কক্সবাজার বিমানবন্দর উন্নয়ন প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালকের বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও অর্থ আত্নসাতের অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে। পরবর্তীতে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে বেবিচককে নির্দেশ দেওয়া হয়। যার পরিপ্রেক্ষিতে বেবিচক ব্যবস্থা নিয়েছে।’

 

/এএইচ/

সম্পর্কিত

নির্বাচনের প্রস্তুতি সম্পন্ন, গণভবনে নিয়ন্ত্রণ কক্ষ

নির্বাচনের প্রস্তুতি সম্পন্ন, গণভবনে নিয়ন্ত্রণ কক্ষ

ভ্যাকসিন নেওয়ার হার কমেছে

ভ্যাকসিন নেওয়ার হার কমেছে

দেশের উদ্দেশে মেট্রো ট্রেন সেটের যাত্রা

দেশের উদ্দেশে মেট্রো ট্রেন সেটের যাত্রা

বাজারে বিক্রির জন্য মোড়ক পরিবর্তনের সময় সরকারি চাল জব্দ

বাজারে বিক্রির জন্য মোড়ক পরিবর্তনের সময় সরকারি চাল জব্দ

অপহরণের ৮ মাস পর মাদ্রাসাছাত্রী উদ্ধার

অপহরণের ৮ মাস পর মাদ্রাসাছাত্রী উদ্ধার

দুর্বৃত্তের বিষে মরলো ঘেরের মাছ

দুর্বৃত্তের বিষে মরলো ঘেরের মাছ

ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ, পিকআপ চালক নিহত

ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ, পিকআপ চালক নিহত

‘জিনের রানী’র ২ বছরের কারাদণ্ড

‘জিনের রানী’র ২ বছরের কারাদণ্ড

কানেকটিভিটিতে লাভ দেখছে বাংলাদেশ

কানেকটিভিটিতে লাভ দেখছে বাংলাদেশ

প্রাইভেটকার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে নদীতে, চালক নিহত

প্রাইভেটকার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে নদীতে, চালক নিহত

দুই দেশের সংস্কৃতির বিকাশে কাজ করবে ভারতীয় সাংস্কৃতিক কেন্দ্র: জয়শঙ্কর

দুই দেশের সংস্কৃতির বিকাশে কাজ করবে ভারতীয় সাংস্কৃতিক কেন্দ্র: জয়শঙ্কর

সর্বশেষ

আপেল কুলে সব কূল জয়!

আপেল কুলে সব কূল জয়!

নিউ জিল্যান্ডে ৩টি শক্তিশালী ভূমিকম্প, সুনামি সতর্কতা প্রত্যাহার

নিউ জিল্যান্ডে ৩টি শক্তিশালী ভূমিকম্প, সুনামি সতর্কতা প্রত্যাহার

নির্বাচনের প্রস্তুতি সম্পন্ন, গণভবনে নিয়ন্ত্রণ কক্ষ

নির্বাচনের প্রস্তুতি সম্পন্ন, গণভবনে নিয়ন্ত্রণ কক্ষ

৫০ বছরেও কোনও হাসপাতাল হলো না বেনাপোলে

৫০ বছরেও কোনও হাসপাতাল হলো না বেনাপোলে

মাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ৯ সদস্যের অনাস্থা

মাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ৯ সদস্যের অনাস্থা

ডিমলায় গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার

ডিমলায় গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার

মানবপাচার মামলায় ট্রাভেল এজেন্সির মালিকসহ দুজনের কারাদণ্ড

মানবপাচার মামলায় ট্রাভেল এজেন্সির মালিকসহ দুজনের কারাদণ্ড

দশমিনায় পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

দশমিনায় পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

বগুড়ায় করোনায় আরও একজনের মৃত্যু

বগুড়ায় করোনায় আরও একজনের মৃত্যু

উদ্যোক্তাদের পাশে লা মেরিডিয়ান ঢাকা

উদ্যোক্তাদের পাশে লা মেরিডিয়ান ঢাকা

ভ্যাকসিন নেওয়ার হার কমেছে

ভ্যাকসিন নেওয়ার হার কমেছে

নিউজিল্যান্ডে ভূমিকম্প, নিরাপদে আছেন তামিম-মুশফিকরা

নিউজিল্যান্ডে ভূমিকম্প, নিরাপদে আছেন তামিম-মুশফিকরা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

দেশের উদ্দেশে মেট্রো ট্রেন সেটের যাত্রা

দেশের উদ্দেশে মেট্রো ট্রেন সেটের যাত্রা

দুই দেশের সংস্কৃতির বিকাশে কাজ করবে ভারতীয় সাংস্কৃতিক কেন্দ্র: জয়শঙ্কর

দুই দেশের সংস্কৃতির বিকাশে কাজ করবে ভারতীয় সাংস্কৃতিক কেন্দ্র: জয়শঙ্কর

বিমান বাহিনীর শীতকালীন মহড়া অনুষ্ঠিত

বিমান বাহিনীর শীতকালীন মহড়া অনুষ্ঠিত

শিশু অপরাধীর সর্বোচ্চ সাজা ১০ বছর: হাইকোর্ট

শিশু অপরাধীর সর্বোচ্চ সাজা ১০ বছর: হাইকোর্ট

অধ্যাপক হুমায়ুন আজাদ হত্যা মামলার যুক্তিতর্ক শুনানি পেছালো

অধ্যাপক হুমায়ুন আজাদ হত্যা মামলার যুক্তিতর্ক শুনানি পেছালো

চলন্ত ট্রাক থেকে ফেলে টোল আদায়কারীকে হত্যার অভিযোগ

চলন্ত ট্রাক থেকে ফেলে টোল আদায়কারীকে হত্যার অভিযোগ

উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণে বিশ্ববিদ্যালয়কে বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখার আহ্বান ইউজিসি’র

উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণে বিশ্ববিদ্যালয়কে বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখার আহ্বান ইউজিসি’র

ফেসবুকে নেতিবাচক মন্তব্য, ১০ শিক্ষককে কারণ দর্শানোর নোটিশ

ফেসবুকে নেতিবাচক মন্তব্য, ১০ শিক্ষককে কারণ দর্শানোর নোটিশ


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.