সেকশনস

বাংলাদেশকে একটা বাজারের জায়গা বানিয়েছে ভারত: সুলতানা কামাল

আপডেট : ০৫ অক্টোবর ২০১৯, ১৭:০৩

সুন্দরবন রক্ষা জাতীয় কমিটির সংবাদ সম্মেলন ভারত আমাদের পাশে না থাকলে স্বাধীনতা যুদ্ধ যেভাবে শেষ হয়েছে, সেভাবে শেষ করা সম্ভব হতো না জানিয়ে মানবাধিকারকর্মী সুলতানা কামাল বলেছেন, ‘কিন্তু কথা হলো, সেটার পরিবর্তে আজকে বাংলাদেশকে একটা বাজারের জায়গা বানিয়েছে তারা (ভারত)। শিল্প-কারখানার জায়গা বানিয়ে তারা নিজেদের স্বার্থ গুছিয়ে নেবে, এ বিষয়টা কিন্তু আমাদের চিন্তাভাবনা করতে হবে।’ শনিবার (৫ অক্টোবর) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে সুন্দরবন রক্ষা জাতীয় কমিটি আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।
ইউনেস্কোর ৪৩তম সভার সুপারিশ বাস্তবায়ন, সুন্দরবনের পাশে রামপালসহ সব শিল্প নির্মাণ প্রক্রিয়া বন্ধ এবং সমগ্র দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের কৌশলগত পরিবেশ সমীক্ষা সম্পন্ন করার দাবিতে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে সংগঠনটি। তিনি বলেন, ‘মানবাধিকারকর্মী হিসেবে আমি দায়িত্ব নিয়ে বলছি, এটা সবচেয়ে সস্তা শ্রমের দেশ। যেনতেনভাবে মানুষকে তাদের জায়গা জমি থেকে উচ্ছেদ করে এই ধরনের প্রকল্প তৈরি করা হচ্ছে। আমাদের এই বিষয়ে দায়িত্ব আছে নাড়াচাড়া দেওয়ার।’
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘সরকার ভুল অবস্থান থেকে সরে এসে রামপাল প্রকল্প বাতিল করুক। বনবিরোধী সব স্থাপনা উৎখাত করে প্রাকৃতিক চরিত্রকে সংরক্ষণ করে বিজ্ঞানসম্মত প্রক্রিয়ায় কয়লার বিকল্প উপায়ে বিদ্যুৎকেন্দ্র তৈরি করা হোক। সম্প্রতি জানা গেছে, রামপাল প্রকল্প নির্মাতা ভারতীয় কোম্পানি এনটিপিসি তাদের নিজ দেশে সব কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্প স্থগিত করেছে। ইকোনমিক টাইমস পত্রিকার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এনটিপিসি আগামী পাঁচ বছর কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ উৎপাদনে যাবে না। কারণ তারা কার্বন তৈরির দায় কমাতে চায়। বরং এনটিপিসি গুজরাটে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম সৌরশক্তি পার্ক তৈরি করতে ২৫ হাজার কোটি রুপি খরচ করছে। অথচ এই প্রতিষ্ঠান প্রবল গণআপত্তির মুখে বাংলাদেশে কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্র তৈরিতে পিছপা হচ্ছে না। এটা তাদের দায়িত্বজ্ঞানহীন ও ডাবল স্ট্যান্ড (দ্বৈতনীতি) আচরণ।’
তিনি বলেন, ‘ইউনেস্কোর ৪৩তম সভায় বিশ্ব ঐতিহ্য সুন্দরবনের দুরবস্থা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। মূলত সুন্দরবন নিরাপদ ও ভালো রাখার ব্যাপারে আমাদের সফলতা নিয়ে ইউনেস্কোর ৪১তম সভায় কিছু নেতিবাচক সঠিক পর্যবেক্ষণ ছিল। বাংলাদেশের যেসব বিষয়ে দায়িত্ব ছিল বা করণীয় ছিল, তা গত জুনে ৪৩তম সভায় প্রতিবেদন আকারে দাখিল করা হয়। কিন্তু ওই সভায় কমিটি সন্তুষ্ট হয়েছে বলে মনে হয়নি। কারণ ২০১৭ সালের কাজগুলো সম্পন্ন করতে তাগাদা দেওয়া হয়েছে। আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে ইউনেস্কোর পর্যবেক্ষণ দল সরেজমিনে দেখতে সুন্দরবনে আসবে। আর বাংলাদেশকে ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারির মধ্যে কৃতকাজের প্রতিবেদন জমা দিতে হবে। আগামী বছর এই সময় প্রতিবেদন মূল্যায়ন করা হবে। সেই সভায় সরকারের কাজে কমিটি সন্তুষ্ট না হলে আগামী বছরই সুন্দরবন আবারও বিপদাপন্ন ঐতিহ্য তালিকায় চলে যেতে পারে, যা দেশ ও জনগণের জন্য অযোগ্যতা, ব্যর্থতা, দুঃখজনক, লজ্জার ও অপমানের একটি বিষয় হবে।’
সংগঠনের পক্ষে তিনি দাবি জানিয়ে বলেন, ‘অবিলম্বে সুন্দরবনে রামপাল বিদ্যুৎ প্রকল্প বাতিল করতে হবে। বাংলাদেশের সমুদ্র উপকূলজুড়ে সব কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্র বাতিল করে বিকল্প জ্বালানি পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে হবে। সুন্দরবনের বাফার জোন করে বনের কাছাকাছি সব কলকারখানা ও এলপিজি কারখানা বন্ধ করতে হবে।’ সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন সুন্দরবন রক্ষা জাতীয় কমিটির সদস্যসচিব ও বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের (বাপা) সাধারণ সম্পাদক ডা. মো. আব্দুল মতিন, কমিটির সদস্য রুহীন হোসেন প্রিন্স ও শরীফ জামিল প্রমুখ।

/এইচএন/ওআর/এমএমজে/

সম্পর্কিত

চাকরিচ্যুত এসআই আব্দুল জলিলের ৬ বছর কারাদণ্ড

চাকরিচ্যুত এসআই আব্দুল জলিলের ৬ বছর কারাদণ্ড

ছাত্র ইউনিয়নের ঢাবি সভাপতি-সম্পাদকসহ ৭ নেতা বহিষ্কার

ছাত্র ইউনিয়নের ঢাবি সভাপতি-সম্পাদকসহ ৭ নেতা বহিষ্কার

৮ কারণে চিনি শিল্পে লোকসান

৮ কারণে চিনি শিল্পে লোকসান

রেল স্টেশনগুলোতে আধুনিক পাবলিক টয়লেট নির্মাণ করবে ওয়াটার এইড

রেল স্টেশনগুলোতে আধুনিক পাবলিক টয়লেট নির্মাণ করবে ওয়াটার এইড

‘বছরে পাঁচ বিলিয়ন ডলারের বেশি চামড়া রফতানি সম্ভব’

‘বছরে পাঁচ বিলিয়ন ডলারের বেশি চামড়া রফতানি সম্ভব’

কৃষি সম্পর্কিত সরকারি কর্মসূচিতে জনপ্রতিনিধিদের সম্পৃক্ত করার সুপারিশ

কৃষি সম্পর্কিত সরকারি কর্মসূচিতে জনপ্রতিনিধিদের সম্পৃক্ত করার সুপারিশ

‘মুজিবনগর-কলকাতা স্বাধীনতা সড়কের কাজ আগামী মাসে শেষ হবে’

‘মুজিবনগর-কলকাতা স্বাধীনতা সড়কের কাজ আগামী মাসে শেষ হবে’

মাতারবাড়ি ঘিরে আঞ্চলিক উন্নয়ন পরিকল্পনায় ঢাকাকে পাশে চায় টোকিও

মাতারবাড়ি ঘিরে আঞ্চলিক উন্নয়ন পরিকল্পনায় ঢাকাকে পাশে চায় টোকিও

বিবিসির রিপোর্ট ভুল, ভাসমান রোহিঙ্গারা বাংলাদেশ থেকে অনেক দূরে

বিবিসির রিপোর্ট ভুল, ভাসমান রোহিঙ্গারা বাংলাদেশ থেকে অনেক দূরে

ঋণ পরিশোধে আরও ছয় মাস পেলেন শিল্প মালিকেরা

ঋণ পরিশোধে আরও ছয় মাস পেলেন শিল্প মালিকেরা

সর্বশেষ

ইসলামের ভুল ব্যাখ্যার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হোন: তথ্যমন্ত্রী

ইসলামের ভুল ব্যাখ্যার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হোন: তথ্যমন্ত্রী

বাবাকে মারধর করায় মাদকাসক্ত বড় ভাইকে গলায় গামছা পেঁচিয়ে হত্যা

বাবাকে মারধর করায় মাদকাসক্ত বড় ভাইকে গলায় গামছা পেঁচিয়ে হত্যা

সেতু আছে সড়ক নেই

সেতু আছে সড়ক নেই

ব্যবসায়ীকে হত্যার দায়ে কর্মচারীর যাবজ্জীবন

ব্যবসায়ীকে হত্যার দায়ে কর্মচারীর যাবজ্জীবন

জয়ে ফিরেছে শেখ জামাল

জয়ে ফিরেছে শেখ জামাল

চাকরিচ্যুত এসআই আব্দুল জলিলের ৬ বছর কারাদণ্ড

চাকরিচ্যুত এসআই আব্দুল জলিলের ৬ বছর কারাদণ্ড

৭৩৯৮ ভরি সোনা আত্মসাৎ: দুই ব্যাংক কর্মকর্তা কারাগারে

৭৩৯৮ ভরি সোনা আত্মসাৎ: দুই ব্যাংক কর্মকর্তা কারাগারে

ড. কামাল জিম্মি!

গণফোরামে সম্মেলনের প্রস্তুতি বিদ্রোহী গ্রুপেরড. কামাল জিম্মি!

ছাত্র ইউনিয়নের ঢাবি সভাপতি-সম্পাদকসহ ৭ নেতা বহিষ্কার

ছাত্র ইউনিয়নের ঢাবি সভাপতি-সম্পাদকসহ ৭ নেতা বহিষ্কার

আরামবাগের বিপক্ষে পুলিশের তিন পয়েন্ট

আরামবাগের বিপক্ষে পুলিশের তিন পয়েন্ট

দুদকের মামলায় মেয়র প্রার্থীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

দুদকের মামলায় মেয়র প্রার্থীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

৮ কারণে চিনি শিল্পে লোকসান

৮ কারণে চিনি শিল্পে লোকসান

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

চাকরিচ্যুত এসআই আব্দুল জলিলের ৬ বছর কারাদণ্ড

চাকরিচ্যুত এসআই আব্দুল জলিলের ৬ বছর কারাদণ্ড

রেল স্টেশনগুলোতে আধুনিক পাবলিক টয়লেট নির্মাণ করবে ওয়াটার এইড

রেল স্টেশনগুলোতে আধুনিক পাবলিক টয়লেট নির্মাণ করবে ওয়াটার এইড

মন্ত্রী পদমর্যাদা কবে পাবেন দুই মেয়র?

মন্ত্রী পদমর্যাদা কবে পাবেন দুই মেয়র?

বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স-মাস্টার্স পড়তে পারবেন পলিটেকনিক শিক্ষার্থীরা

বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স-মাস্টার্স পড়তে পারবেন পলিটেকনিক শিক্ষার্থীরা

হাইকোর্টের রায়ের পর যে অপেক্ষা

পিলখানা হত্যাকাণ্ডহাইকোর্টের রায়ের পর যে অপেক্ষা

মাদকাসক্ত শিশু-কিশোরদের শনাক্তে মাঠে নেমেছে ডিএমপি

মাদকাসক্ত শিশু-কিশোরদের শনাক্তে মাঠে নেমেছে ডিএমপি

‘আহমদ শরীফের মাঝে সত্য বলার ক্ষমতা ছিল প্রবল’

জন্মশত বার্ষিকী অনুষ্ঠানে বক্তারা‘আহমদ শরীফের মাঝে সত্য বলার ক্ষমতা ছিল প্রবল’

‘পুস্তক শিল্পকে বাঁচাতে সব ব্যবস্থা নেবে সরকার’

‘পুস্তক শিল্পকে বাঁচাতে সব ব্যবস্থা নেবে সরকার’

যুব সমাজকে কোরআন অধ্যয়নে মনোযোগী হতে হবে: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

যুব সমাজকে কোরআন অধ্যয়নে মনোযোগী হতে হবে: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

বিএনপিকে প্রতিটি অনুষ্ঠানের অনুমতি নিতে বললেন আইজিপি

১৯ দিনের দলীয় কর্মসূচিবিএনপিকে প্রতিটি অনুষ্ঠানের অনুমতি নিতে বললেন আইজিপি


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.